কমলগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় পিতা-পুত্র আহত

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের গকুলনগরে প্রতিপক্ষের হামলায় পিতাপুত্র আহত হয়েছে। হামলাকারীরা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে পিতা ও পুত্র কুপিয়ে পালিয়ে যায়। পরে আশংকাজনক অবস্থায় আহত পিতা-পুত্রকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বুধবার (২৪ নভেম্বর) সন্ধ্যায় উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের গকুলনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত পিতা-পুত্র হলেন মৃত হাসমত উল্লাহর ছেলে মোঃ সফিক মিয়া (৫৫) ও তার পুত্র শেখ রাফিজুল ইসলাম (২০)।

সরজমিনে গেলে স্থানীয়রা জানান, গকুলনগর গ্রামের সফিক মিয়ার সাথে একই গ্রামের আব্দুস শহীদ গংদের দির্ঘদিন ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছিল। বুধবার সন্ধ্যার দিকে সফিক মিয়া মাঠ থেকে মহিষ নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় প্রতিপক্ষ আব্দুস শহীদ, তার স্ত্রী তাহেরা বেগম, তার ছেলে সোয়েব, আতিক, বদরুল, আজমত উল্লাহর ছেলে ইয়াসিন মিয়া গংরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সফিক মিয়ার উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় তার ছেলে রাফিজুল ইসলাম তার বাবাকে বাঁচাতে এগিয়ে গেলে তার উপরও হামলা করা হয়। হামলাকারীরা পিতাপুত্রকে কূপিয়ে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে দ্রুত তাদের সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

আহত সফিক মিয়ার ছেলে কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদে কর্মরত মো. মিজানুর রহমান জানান, জমিজমা সংক্রান্ত জের ধরে বুধবার সন্ধ্যায় প্রতিপক্ষ আব্দুস শহীদ তার স্ত্রী তাহেরা বেগম,তার ছেলেরা ও আজমত উল্লাহর ছেলে ইয়াসিন মিয়া দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তার বাবা ও ভাইয়ের উপর হামলা করা হয়। গুরুতর আহতাবস্থায় তাদেরকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ বিষয়ে অভিযুক্ত আব্দুস শহীদের স্ত্রী তাহেরা বেগম অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, প্রতিপক্ষ সফিক ও তার ছেলে আমার ছেলে আতিককে মারধর করে। আমার ছেলের কানে ও হাতে ১৫টি সেলাই লেগেছে। তাকে নিয়ে বর্তমানে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে আছি। বৃহস্পতিবার এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কমলগঞ্জ থানায় কোন মামলা হয়নি।

কমলগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) সোহেল রানা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনা শুনে তাত্ক্ষণিক ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। এখন পর্যন্ত লিখিত কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ/এস.

  • 22
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ