মা’কে মারধরের ঘটনায়, ছেলে-বউমা-নাতির বিরুদ্ধে মামলা

ঠাকুরগাঁওয়ে জমি লিখে নিতে বয়স্ক মা’কে মারধরের অভিযোগে দুই ছেলে, তাঁদের স্ত্রী ও এক নাতির বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। গতকাল সোমবার ঠাকুরগাঁও সদর থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়। বয়স্ক মা শান্তি চক্রবর্তী (৬৭) নিজেই মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়,  সদর উপজেলার বেগুনবাড়ী ইউনিয়নের পাইকপাড়া এলাকার শান্তি চক্রবর্তীর ছোট ছেলে কেশব চক্রবর্তী তাঁর পৈতৃক সম্পত্তির সাড়ে তিন বিঘা জমি আট বছর আগে তাঁর মায়ের নামে দানপত্র করে দেন। সম্প্রতি জমির ভাগ-বাঁটোয়ারা নিয়ে বড় ছেলে মনি চক্রবর্তী ও সৎ ছেলে বিনয় চক্রবর্তীর সঙ্গে মায়ের ঝগড়া-বিবাদ ঘটে। এ অবস্থায় গত মঙ্গলবার দুপুরে সেই জমি জবরদখলে নেওয়ার উদ্দেশ্যে ট্রাক্টর দিয়ে হালচাষ করতে যান তাঁরা। ঘটনা জানতে পেরে শান্তি চক্রবর্তী ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রতিবাদ করেন। এ সময় মনি চক্রবর্তী ও তাঁর স্ত্রী বন্দনা চক্রবর্তী, সৎ ছেলে বিনয় চক্রবর্তী, বিনয় চক্রবর্তীর ছেলে উৎসব চক্রবর্তী ও স্ত্রী চঞ্চলা চক্রবর্তী লাঠিসোঁটা ও দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাঁর ওপর হামলা এবং মারপিট করেন।

একপর্যায়ে তাঁদের মারপিটে পা ভেঙে মাটিতে পড়ে যান শান্তি চক্রবর্তী। তাঁর চিৎকারে আরেক ছেলে লক্ষণ চক্রবর্তী, বউমা অঞ্জলী চক্রবর্তী ও নাতি অনিক চক্রবর্তী তাঁকে বাঁচাতে এলে তাঁদেরও পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়। এ সময় স্থানীয়রা এগিয়ে এলে ছেলে, বউ ও নাতিরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। পরে আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে শান্তি চক্রবর্তী কিছুটা সুস্থ হলে দুই ছেলেসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

মামলার বিষয়ে মনি চক্রবর্তীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘মায়ের শরীরে আমি হাত তুলিনি। মা পড়ে গিয়ে ব্যথা পেয়েছেন। সম্পত্তি নিয়ে আমার ছোট ভাই ও মা আমাকে হয়রানি করছেন।’

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তানভিরুল ইসলাম বলেন, সম্পত্তির জেরে মাকে মারধর করার অভিযোগে শান্তি চক্রবর্তী নামে এক নারী পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনায় জড়িত আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ/এ.

  • 21
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ