নোয়াখালীতে দাবি আদায়ে রাস্তায় দাঁড়ালেন হরিজন পরিষদ

দারিদ্র বিমোচন কর্মসুচিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক জাত-হরিজনদের শতকরা ৮০শতাংশ কোটায় পরিছন্নতা কর্মী পদে নিয়োগের দাবিতে নোয়াখালীতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছে হরিজন সম্প্রদায়। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় নোয়াখালী প্রেসক্লাবের সামনে হত-দরিদ্র বেকার হরিজনদের নিয়োগের সুপারিশসহ বিভিন্ন দাবীতে বাংলাদেশ হরিজন ঐক্য পরিষদ জেলা শাখা মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করে।

এ সময় হরিজনরা জানান, তাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা নেই এমনটা জানার পরও লিখিত পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে। হরিজনদের নির্ধারিত পদে প্রশাসন অ-হরিজনদের নিয়োগ দিচ্ছে। এতে হরিজনদের মধ্যে বেকারত্ব বাড়ছে, শিক্ষাগত যোগ্যতা না থাকায় তারা ভিন্ন কোনো স্থানেও চাকরি পাচেছন না। আবার ব্যবসা বাণিজ্য করতে পারছেন না, তারা হোটেল- রেস্তোরা দিলে তাদের হাতে কেউ খাচ্ছেন না। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী আমাদের দাবীর ৮০% কোটা নির্দেশনা প্রদান করায় বেকারত্বের অভিশাপ থেকে মুক্তির স্বপ্ন দেখছি আমরা। বর্তমান সরকারের দারিদ্র বিমোচন কর্মসূচির মধ্যে হত-দরিদ্র হরিজন সন্তানদের বেঁচে থাকার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক কোটায় বেকারদের নিয়োগের জন্য অনুরোধ জানান তারা। এসময় লিখিত পরীক্ষা বাতিল করে হরিজনদের নির্দিষ্ট কোটায় চাকরি নিশ্চিতের দাবীও জানান। পরে দাবীগুলোর প্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসক বরাবর স্বারকলিপি প্রদান করে সংগঠনটির সদস্যরা।

এসময় বক্তব্য রাখেন, হরিজন ঐক্য পরিষদ নোয়াখালী শাখার সভাপতি গনেশ হরিজন, সহ-সভাপতি ভাস্কর শুভ হরিজন, সাধারণ সম্পাদক কালা হরিজন, সদস্য কান্তিবালা হরিজনসহ অনেকে। উপস্থিত ছিলেন, হরিজন ঐক্য পরিষদের সদস্য কার্তিক হরিজন, রাজু হরিজন, দীলিপ হরিজন ও চন্দন হরিজনসহ সম্প্রদায়ের অর্ধশতাধিক লোকজন।

 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ/জি.

  • 19
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ