বেগমগঞ্জে ভোটের ১দিন পর ব্যালট পেপারের মুড়ি ও সিল উদ্ধার, পুনঃ ভোটের দাবীতে বিক্ষোভ

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার আমান উল্যাপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের মহেশপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবনের পিছন থেকে ৫টি ব্যালট পেপারের মুড়ি ও একটি সিল উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় বিদ্যালয় ভবনের সামনে কয়েকশ এলাকাবাসী এ ভোট কেন্দ্রের ফলাফল বাতিল করে পুনরায় ভোট প্রদানের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল করে।

বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহেদুল হক রনি জানান, বিদ্যালয়ের দপ্তরী ময়লা ফেলার জন্য বিদ্যালয় ভবনের পিছনে গেলে ৫টি মুড়ি ও সিল পায়। পরে থানায় জানালে পুলিশ এসে মুড়ি ও সিল উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

বেগমগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রাহাত তানভির চৌধুরী জানান, এখন পর্যন্ত কোন প্রার্থী অভিযোগ দেয়নি। তবে, সংশ্লিষ্ট ভোট কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার থানায় জিডি করে মুড়ি ও সিল রিটানিং কর্মকর্তাকে দিবে। রিটানিং কর্মকর্তা উপজেলা নির্বাচন অফিসারকে দিলে তিনি তদন্ত করে নির্বাচন কমিশনের কাছে বিস্তারিত তদন্ত প্রতিবেদন পাঠাবেন। এ কেন্দ্রের ফলাফলের বিষয়ে কমিশন সিদ্ধান্ত নেবে।

উল্লেখ্য, আমান উল্যা পুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৭ জন প্রতিদ্ধন্দ্বিতা করে। এর মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী বাহার উল আলম ঘোড়া প্রতীক নিয়ে ৩১০৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী নুরুল হুদা পেয়েছেন ২৮৯১ ভোট। অপরদিকে নৌকা প্রতীক প্রার্থী আরিফুর রহমান মাহমুদ ১৭০৫ ভোট পান। স্বতন্ত্র প্রার্থী বাহার উল আলম ২১৫ভোট বেশি পেয়ে নির্বাচিত হন।

ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও স্বতন্ত্র প্রার্থী নুরুল হুদা বলেন, কেন্দ্র দখল করে জোর করে ব্যালটে সিল মেরে বিজয়ী হয় বাহার উল আলম। যার প্রমান আজকের ৫টি মুড়ি ও সিল উদ্ধার। তিনি অবিলম্বে এ কেন্দ্রের ফলাফল বাতিল করে পুনরায় ভোট গ্রহনের দাবী করেন।

 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ/জি.

  • 12
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ