নড়াইলে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে একে অপরের বিরুদ্ধে হামলা-ভাংচুরের অভিযোগ

নড়াইলে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নৌকা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী একে অপরের বিরুদ্ধে পাল্টা-পাল্টি হামলা-ভাংচুরের অভিযোগ করেছেন। জানাগেছে, সদর উপজেলা কলোড়া ইউনিয়নে পৃথক হামলার ঘটনা ঘটেছে। নৌকা প্রার্থী আশিষ কুমার বিশ্বাসের সমর্থকদের হামলায় কমপক্ষে ৫ জন আহত হয়েছে। এসময় একাধিক মোটরসাইকেল ভাংচুর করা হয় বলে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্বাস আলী সরদারের অভিযোগ। একজনকে সদর হাসপাতালে ভর্তিকরা হয়েছে অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

অপরদিকে নৌকা প্রার্থী আশিষ কুমার বিশ্বাস অভিযোগ করেন বিএনপির লোকজন নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্বাস আলী সরদার আমার সমর্থদের বাড়ি-ঘর ভাংচুর করেছে। স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্বাস আলী সরদারের অভিযোগ করেন, রোববার সন্ধ্যা ৭টার দিকে কলোড়া ইউনিয়নের বাহিরগ্রাম কুন্ডুপাড়া এলাকায় আমরা পৌঁছালে নৌকা প্রার্থী আশিষ কুমার বিশ্বাসের সমর্থকরা আমাদের ওপর হামলা চালিয়ে মোটর সাইকেলের ভাংচুর করে এবং আমাদের মারধর করে। এঘটনা পর আবারও রাত সাড়ে ৮টার দিকে আগদিয়া চৌরাস্তা এলাকায় আমার সমর্থক সোহেল সিকদার (৪০)কে কুপিয়ে ও পিটিেিয় আহত করে বলেও অভিযোগ করেন।

আহত সোহেল সিকদার অভিযোগ করেন, আমার দোকানে এসে আমার উপর হামলা চালিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে দোকান থেকে ৫০ হাজার টাকা নিয়ে যায়। এসময় আমার মোটরসাইকেলটিও ভাংচুর করে নৌকার সমর্থকরা।

নৌকা প্রার্থী আশিষ কুমার বিশ্বাস হামলার অভিযোগ অস্বিকার করে তিনি অভিযোগ করে বলেন, গতরাতে বিএনপির লোকজন নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্বাস আলী সরদার আমার সমর্থদের বাড়ি-ঘর ভাংচুর করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্পর্কে বাজে মন্তব্য করেছে অভিযোগো করে তিনি বলেন, নৌকার একাধিক অফিস পুড়িয়ে দিয়েছে তারা রাতে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শওকত কবির বলেন, উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হলে আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের শান্ত করি। সোমবার সকাল ১০টা পর্যন্তু কোন পক্ষয় লিখিত অভিযোগ করেনি, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ/এইচ.

  • 28
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ