পৌরসভার বর্জ্য ফেলা হচ্ছে সড়কের পাশে

ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈল পৌরসভার বর্জ্য মহাসড়কের পাশে ফেলা হচ্ছে। এতে দুর্গন্ধে নাক চেপে যাতায়াত করতে হচ্ছে পথচারীদের। চরম দূর্ভোগ পথচারীদের এমন অভিযোগ করেন অনেকেই।

জানা যায়, পৌরশহরের রানীশংকৈল–পীরগঞ্জ মহাসড়কের কুলিক নদী সেতুর সংলগ্ন সড়কে এ বর্জ্য ফেলছে পৌরসভা কর্তৃপক্ষ। তবে কর্তৃপক্ষ বলছে ময়লা ফেলার নিজস্ব জায়গা না থাকায় সড়কের পাশে ফেলতে হচ্ছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মহাসড়কের দু-ধারে ময়লা–আবর্জনা ফেলে স্তূপ করে রাখা হয়েছে। আবর্জনাগুলো এলোমেলো হয়ে এবং সামান্য বাতাসে সড়কে আসছে। পথচারীরা পায়ে হেঁটে গেলে নাকে–মুখে কাপড় দিয়ে চলাচল করছে। প্রতিবেদকের সামনেই স্থানীয় এক নারী ওই সড়ক দিয়ে যাওয়ার সময় নাকে–মুখে কাপড় দিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘খুব দুর্গন্ধ, কড়া রোদ হলে তো দুর্গন্ধের মাত্রা আরও বেড়ে যায়।’ ’

সচেতন মহলের দাবি, সেতুর পাশে এভাবে ময়লা আবর্জনা ফেলা ঠিক না। কারণ এসব ময়লা–পলিথিন বৃষ্টির পানিতে নদীতে মিশে যেতে পারে। এতে নদীর ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

পৌরমেয়র মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘পৌরসভার ময়লা–আবর্জনা ফেলার জন্য নিজস্ব কোনো জায়গা নেই। তাই পাইলট স্কুল এলাকায় শিবদিঘী হেলিপ্যাড ও কুলিক নদীর সংলগ্ন মহাসড়কের পাশে ময়লা ফেলতে হচ্ছে।’

ডেইলিরুপান্তর/আবির

  • 16
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ