নোয়াখালীতে বিএনপি নেতার বহিষ্কার, ৪৮ নেতার প্রত্যাহার দাবি

নোয়াখালী জেলা বিএনপি ত্রাণ ও পুর্নবাসন সম্পাদককে দলীয় শৃঙ্খলা পরিপন্থী কাজে লিপ্ত থাকার সুনির্দিষ্ট অভিযোগের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির প্রাথমিক সদস্য পদসহ সকল পর্যায়ের পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

গতকাল রোববার (১৭ অক্টোবর) বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী বিএনপির সহ দপ্তর সম্পাদক বেলাল আহমেদ স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দলীয় শৃঙ্খলা পরিপন্থী কাজে লিপ্ত থাকার সুনির্দিষ্ট অভিযোগের প্রেক্ষিতে নোয়াখালী জেলা বিএনপি ত্রাণ ও পুর্নবাসন সম্পাদক আবদুর রহমানকে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির প্রাথমিক সদস্য পদসহ সকল পর্যায়ের পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

আবদুর রহমান বলেন, বিগত ২০ মাস যাবত একটি পক্ষ সেনবাগে বিএনপির রাজনীতি ধ্বংস করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। সম্প্রতি এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বক্তব্য দেওয়ায় তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

নোয়াখালী জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক ওমর ফারুক টফি বহিষ্কারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, যদি দলের কোন নেতা আমাদের দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দের কাছে বহিষ্কার আদেশ প্রত্যাহারের আহ্বান জানায় তাহলে দল বিবেচনা করবে। বহিষ্কারতো দলের একটা অংশ আবার প্রত্যাহার করাও আমাদের সাংগঠনিক একটা অংশ।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বহিষ্কৃত বিএনপি নেতা আবদুর রহমান উপজেলার ছাতাপাইয়া ইউনিয়নের টানা তিনবারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান, ছাতাপাইয়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি, উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ক্ষমতাসীন দল তার বিরুদ্ধে রাজনৈতিক কারণে ৬২টি মামলা দেয়।

অপরদিকে, তার বহিষ্কার আদেশ প্রত্যাহার দাবি করেছে বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও সাবেক বিরোধীদলীয় চীফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক সহ উপজেলা বিএনপির ৪৮ নেতা।

বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও সাবেক বিরোধীদলীয় চীফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক জানান, আবদুর রহমান চেয়ারম্যান ক্ষমতাসীন দলের মামলা হামলার শিকার দলের একজন ত্যাগী নেতা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দলের ৪৮জন নেতা তার বহিষ্কার আদেশ প্রত্যাহারের আবেদন জানিয়েছে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান বরাবর।

 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ/জি.

  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ