বাঘড়া চেয়ারম্যান প্রার্থীর আচরণ বিধি লঙ্গণ নির্বাচন উপলক্ষে সেলিনার নলকূপ পেল শাহানাজ

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে বাঘড়ায় ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রতিশ্রুতি হিসেবে সেলিনার নামে থাকা ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের উপজেলা ধিঃংধহ কমিটি প্রকল্পের সেলিনার নামে থাকা গভীর নলকূপটি তাকে না দিয়ে শাহানাজ নামে আরেক নারীকে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আসন্ন ইউপি নির্বাচন উপলক্ষে ৭নং বাঘড়া ইউনিয়নে ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল ইসলাম গতকাল বাঘড়া ইউনিয়নের ছত্রভোগ গ্রামে এই নলকুপটি স্থাপনের জন্য প্রদান করেন। যদিও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন আচরণ বিধির বিধিমালা ২৫এর ৩নং কলামে বলা আছে, নির্বাচন-পূর্ব সময়ে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বা সদস্য অন্য কোন পদাধিকারী সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ এলাকায় উন্নয়নমুলক কোন প্রকল্প অনুমোদন বা ইতিপূর্বে অনুমোদিত কোন প্রকল্পে অর্থ অবমুক্ত বা প্রদান করিতে পারিবে না।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলা ধিঃংধহ কমিটি কর্তৃক নির্বাচিত গভীর নলকুপ স্থানে তালিকায় থাকা বাঘড়া ইউনিয়নের বাঘড়া গ্রামের সেলিনা স্বামী আঃ জব্বার নামটি কলম দিয়ে কেটে গভীর নলকূপটি বাঘড়া ইউনিয়ন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বাবুল শেখের স্ত্রী শাহানাজ বেগমকে দেওয়া হয়। শাহানাজ বেগম তার নিজের নামে নলকুপটি পেয়ে ১১ অক্টোবর তার বাড়ীতে স্থাপন কাজ শুরু করেন।

অন্যের নামের গভীর নলকূপটি নিজের স্ত্রীর নামে পাওয়ার ব্যাপারে বাবুল শেখের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার বাড়ীতে নলকুল নেই। তাই দুইদিন আগে বাঘড়া চেয়ারম্যান সাহেব আমার স্ত্রীর নামে দিয়েছে। তাই এখন বাড়ীতে নলকূপটি স্থাপন করতেছি।

উপজেলা উপ-সহকারী প্রকৌশলী (জনস্বাস্থ্য) মোঃ আসিফ নেওয়াজ এব্যাপারে বলেন, আপনাদের হাতে যে তালিকাটা আছে সেটা চুরান্ত তালিকা না। এটা হচ্ছে এমপি সাহেবের বরাদ্দ। চেয়ারম্যান যে তালিকা দিবেন সেটা চুড়ান্ত। তবে চেয়ারম্যান সাহেব এই নলকুপ দিয়ে নির্বাচনী প্রচারনা চালাতে পারবে না।

 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ/কে.

  • 12
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ