নৌকার মনোনয়ন পেতে প্রার্থীদের দৌড়-ঝাপ

আগামী ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হবে ছাতক উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন। মনোনয়ন পত্র দাখিলের শেষ তারিখ ১৭ অক্টোবর। উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, সদস্য, সদস্যা প্রার্থীরা বর্তমানে নির্বাচনী মাঠকে সরগরম করে রেখেছেন। চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকে যারা লড়তে ইচ্ছুক তারা এখন ঢাকায় অবস্থান করছেন।

উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের মধ্যে ইউনিয়ন নির্বাচনের প্রথম ধাপে নোয়ারাই ও সিংচাপইড় ইউনিয়নের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে গত ২১জুন। এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে ভাতগাও ইউনিয়নের নির্বাচন স্থগিত করা হলে এ ইউনিয়নের নির্বাচন আগামী ২ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর থেকেই উপজেলার ১০টি ইউপির চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা মাঠে নেমে চালিয়ে যাচ্ছেন প্রচারণা। আর দলীয় মনোনয়ন পাবার ও সমর্থনের আশায় মাঠে দৌড়-ঝাঁপ শুরু করেছেন তারা। এদিকে মাঠে নেই বিএনপি।

বিএনপির নেতারা বলছেন, কেন্দ্রের নির্দেশনার দিকে তাকিয়ে সাড়া পাবার অপেক্ষায় রয়েছেন তারা। এছাড়া জাতীয় পার্টিরও কয়েকজন মনোনয়ন প্রত্যাশী মাঠে নেমেছেন। তবে অন্য কোনো দলের সম্ভাব্য প্রার্থীদের এখনো মাঠে দেখা যায়নি। এদিকে এই উপজেলায় বইতে শুরু করেছে নির্বাচনী আমেজ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক ও উপজেলার ইউনিয়নগুলোতে আওয়ামী লীগের অনেক নেতারা মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে দলীয় মনোনয়ন ও সমর্থন চেয়ে পোস্টার, ব্যানার, ফেস্টুন ছাটিয়ে নিজের প্রার্থিতা জানান দিচ্ছেন। বর্তমানে দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে ১০টি ইউনিয়নের মধ্যে দোলারবাজার ইউনিয়নে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণের সিদ্ধান্ত হলেও তা পরিবর্তন করা হয়েছে। উপজেলার ১০টি ইউনিয়নেই নির্বাচন এখন ব্যালটের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হবে। এদিকে সব ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা দলীয় মনোনয়নের জন্য কেন্দ্রে অবস্থান করছেন। সকল ইউনিয়নেই একাধিক প্রার্থী দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করে মনোনয়ন বোর্ডের কাছে জমা দিয়েছেন।

এপর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল মছব্বির, আবু বকর সিদ্দিক, আলহাজ্ব জয়নাল আবেদীন, আব্দুল খালেক, আবুল কাশেম হাসান তালুকদার, আহবাব মিয়া তালুকদার সাজু, গোলাম আজম তালুকদার নেহার। উত্তর খুরমা ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান বিল্লাল আহমদ, আরশ আলী খান ভাসানী, এড.ছায়াদুর রহমান, এড.মনির উদ্দিন ও জসীম উদ্দিন।

জাউয়াবাজার ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান মুরাদ হোসেন, সাবেক চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম, সাবেক চেয়ারম্যান আখলুছ মিয়া, সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আব্দুল খালিক, ইউপি সদস্য আব্দুল হক, শাহীন তালুকদার ও গৌছুল হক নাইম। কালারুকা ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান অদুদ আলম, কামাল উদ্দিন, আব্দুল মুকিত ও হুমায়ুন কবির রুবেল।

ছৈলা-আফজালাবাদ ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করতে বর্তমান চেয়ারম্যান গয়াছ আহমদ, গৌছ উদ্দিন, রনজিত দাম, খালেদ হাসান, শফিকুর রহমান, মোতাহির আলী, জিহাদুল ইসলাম ও ওবায়দুর রউফ বাবলু।

ছাতক সদর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম, রঞ্জন কুমার দাস ও মাফিজ আলী।গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাও ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আখলাকুর রহমান, সাবেক চেয়ারম্যান হাজী সুন্দর আলী, সাবেক চেয়ারম্যান হাজী নিজাম উদ্দিন ও আবু তাহের চৌধুরী। দোলারবাজার ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান শায়েস্তা মিয়া, আমির উদ্দিন, আনোয়ার হোসেন, গিয়াস উদ্দিন ও টিএম রায়হান আহমদ।চরমহল্লা ইউনিয়নে আবুল বশর অপু।

ইসলামপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল হেকিম, কামরুজ্জামান, আব্দুল জব্বার খোকন, মুক্তার আলী ও জয়নাল আবেদীন দলীয় মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করে মনোনয়ন বোর্ডে জমা দিয়েছেন। ৮ অক্টোবর দলীয় মনোনয়ন বোর্ড প্রার্থীদের বাছাই করে নৌকা প্রতীকের ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেবেন বলে ঢাকায় অবস্থানরত একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশীরা জানিয়েছেন।

 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ/টি.

  • 10
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ