ছাগল চুরির মিথ্যা অভিযোগে দুই শিক্ষার্থীকে গাছে বেঁধে নির্যাতন, ইউপি সদস্য আটক

দিনাজপুরের হাকিমপুরে ছাগল চুরির অভিযোগে দুই শিক্ষার্থীকে গাছে বেঁধে নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে নির্যাতনকারী নাজমুল হোসেন নামের বোয়ালদাড় ইউনিয়ন পরিষদের এক ইউপি সদস্যকে আটক করেছে থানা পুলিশ।

গতকাল শুক্রবার সকালে হাকিমপুর উপজেলার বোয়ালদাড় ইউনিয়নের মোল্লাবাজার এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। ঘটনার ১১ ঘন্টা পর অভিযুক্ত ইউপি সদস্য নাজমুল ইসলামকে আটক করছে পুলিশ।

শিক্ষার্থী আরিফ ও সৌরভ জানান, শুক্রবার স্কুল বন্ধ থাকায় বাবার মটরসাইকেল নিয়ে ঘুরতে যায় উপজেলার মোল্লাবাজার এলাকায়। তারা দুজনেই বাংলাহিলি পাইলট স্কুল এন্ড কলেজের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র। রাস্তার পাশে একটি সুন্দর ছাগলের বা”চা দেখতে পেয়ে তারা কোলে নিয়ে সেলফি তোলার জন্য প্রতি হন। এসময় কয়েকজন লোক আমাদের চোর চোর বলে বলে ধাওয়া করেন। এতে ভয়পেয়ে আমরা দ্রুত মটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যাবার সময় তারা আমাদেরকে রাস্তার উপর থেকে ধরে নিয়ে গিয়ে ছাগল চুরির অভিযোগ এনে ইউপি সদস্য নাজমুল হোসেনসহ কয়েকজন আমাদের গাছের সাথে বেঁধে এলোপাতাড়ি ভাবে মারতে থাকে।

এদিকে সম্মানহানি ভেবে ওই দুই ছাত্রের পরিবার বিষয়টি ধামাচাপা দিতে চাইলে শুক্রবার দুপুরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নির্যাতনের ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে পড়ে। পরে বিষয়টি থানাপুলিশের নজরে এলে হাকিমপুর মহিলা ডিগ্রী কলেজ এলাকা থেকে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য নাজমুল হোসেনকে আটক করেন।

হাকিমপুর থানা ওসি খায়রুল বাসার শামীম জানান,সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে নির্যাতনের একটি ভিডিও দেখে থানা পুলিশের একটি টিম ইউপি সদস্য নাজমুল হোসেনকে আটক করা হয়েছে এবং ভিডিওটি দেখে অন্যদের শনাক্ত করে আটকের চেষ্টা করা হচ্ছে। এঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

ডেইলিরুপান্তর/আবির

  • 49
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ