ঠাকুরগাঁওয়ে গণউন্নয়ণ সমিতির মাঠকর্মীর বিরুদ্ধে ত্রিশ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

ঠাকুরগাঁওয়ের গণউন্নয়ণ সমবায় সমিতির সাবেক মাঠকর্মী বেলাল উদ্দীনের বিরুদ্ধে ত্রিশ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেছে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার গণউন্নয়ণ সমবায় সমিতির লিমিটেড কার্যালয় চত্বরে সমিতির ম্যানেজার লিখিত বক্তব্য পাঠ করে বিষয়টি সাংবাদিকদের কাছে তুলে ধরেন।

সংবাদ সম্মেলনে, সংস্থার ম্যানেজার বেলাল উদ্দীন বলেন, মাঠকর্মীর সাথে নামের মিল থাকার সুযোগ নিয়ে করোনাকালিন সময়ে অফিসের নিয়ম ভঙ্গ করে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার দুওসুও এবং বড়বাড়ি দুটি ইউনিয়নের সমিতির সাড়ে তিনশ সদস্যের কাছে সঞ্চয় ও ঋণের ত্রিশ লাখ টাকা আদায় করে আত্মসাত করে। পরবর্তিতে বিষয়টি জানতে পারলে আদায়কৃত টাকা সমিতিতে জমা দিতে চাপ প্রয়োগ করলে একমাস সময় নেয় মাঠকর্মী বেলাল। সময় অতিবাহিত হলে প্রতারণার আশ্রয়ে কৌশল খাটিয়ে সোনালী ব্যাংক লিঃ ত্রিশ লাখ টাকার একটি চেক সমিতির সম্পাদকের কাছে জমা দেন।

সমিতির পক্ষ থেকে চেকের মাধ্যমে টাকা উত্তোলন করতে গেলে তার একাউন্টে টাকা না থাকায় তা ডিজ অনার করেন ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। পরে আবারো সমিতির পক্ষ থেকে একটি লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হলে তার কোন জবাব না দেয়ায় গত ৫ নভেম্বর ২০২০ সালে তার বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাত ও চেক জালিয়াতির মামলা করা হয়।

মামলার হওয়ার পর থেকে প্রতারক বেলাল নিজেকে বাঁচাতে সমিতির কর্মকর্তাদের নামে ভুল তথ্য উপস্থাপন করার পাশাপাশি ম্যানেজারের নামে একটি ভুয়া মামলা দায়ের করেন দূর্নীতি দমন কমিশনে। যার কোন সত্যতা নেই। মুলত সে গ্রাহকদের টাকা হজম করতেই আরেকটি কৌশল অবলম্বন করছেন। বর্তমানে প্রতারক বেলাল গ্রাহকের টাকায় নিজের নামে জমি ক্রয়সহ কয়েক কক্ষ বিশিষ্ট্য পাঁকা বাড়ি নির্মান করছে। এছাড়া মাঠকর্মী বেলাল জমি ক্রয় করে দেয়ার নাম করে বায়নামা বাবদ এগার লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়। সেই টাকা ফেরতেও চেক জালিয়াতির আশ্রয় নেয় বেলাল। তার চেক দিয়ে টাকা উত্তোলন করতে চাইলে টাকা না থাকায় তার বিরুদ্ধে আরো একটি চেক জালিয়াতির মামলা আদালতে চলমান রয়েছে। অবিলম্বে তাকে আইনের আওতায় এনে অর্থ উত্তোলনের ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানান প্রশাসনের কাছে।

 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ/এম.

  • 44
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ