সরকারী ক্রয় ব্যবস্থা সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে সাংবাদিকদের ভূমিকা অপরিসীম- প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তী

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন, পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের (আইএমইডি) সচিব প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তী বলেছেন, সরকারী ক্রয় প্রক্রিয়ার সাথে আমরা সকলেই জড়িত। সরকারী তহবিল দ্বারা কোন পণ্য, কার্য বা সেবা ক্রয়ের ফলে কোন না কোন ভাবে আমরা সবাই তা ভোগ করি। আমরা এর উপকারভোগী এবং সুফলভোগী।

তিনি বলেন, সরকারী ক্রয় কার্যক্রম ও ই-জিপি তে সিলেট অঞ্চল অগ্রগামী। সিলেটে এ সেক্টরে ভাল কাজ হচ্ছে। এই করোনা পরিস্থিতিতেও আমাদের এডিপি অর্জনের হার ৮২ শতাংশ প্রায়।

তিনি বলেন, এক্ষেত্রে সাংবাদিকরা আমাদেরকে সবচেয়ে বেশী সহযোগিতা করছেন। আমাদের চোখ তৃণমুলের গোঁড়ায় যেতে পারে না। সেখানে আমাদের  পৌঁছা রীতিমত দুঃসাধ্য।তাই আমরা যখন দেখি পত্রিকার পাতায় প্রতিবেদন আসে-বিভিন্ন প্রকল্পের কাজে মন্থর গতি।অথবা কোন কাজে কোথাও ত্রুটি বিচ্যুতির রিপোর্ট।তখনই আমরা সেখানে টীম পাঠাই।

তিনি বলেন, সাংবাদিকদের রিপোর্টিংয়ের কারণেই আমাদের কাজের অগ্রগতি সাধিত হয়। পরিকল্পনা বাস্তবায়নে আমরা তৎপর হই।দেশ ও মানুষের সেবা কার্যক্রম দ্রুতগতি লাভ করে।

প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তী গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন, পরীবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের সেন্ট্রাল প্রকিউরমেন্ট টেকনিক্যাল ইউনিটের উদ্যোগে আয়োজিত সাংবাদিকদের জন্য সরকারী ক্রয় ও ই-জিপি বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

অনলাইনে জুম ভিডিও কনফারেন্সিং প্লাটফর্মের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন, পরীবীক্ষণ ও মূল্যায়ন (আইএমইডি) বিভাগের সেন্ট্রাল প্রকিউরমেন্ট টেকনিক্যাল ইউনিটের (সিপিটিইউ) মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মো: শোহেলের রহমান চৌধুরী।

সিপিটিইউ কর্মকর্তা বাদল হালদারের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেটের জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এম কাজী এমদাদুল ইসলাম।

এতে মাল্টিমিডিয়া প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে সরকারী ক্রয় এবং এর ডিজিটাইজিং সম্পর্কিত ধারণা প্রদান করেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের আইএমইডি’র সিপিটিইউ’র পরিচালক (যুগ্ম সচিব) মো: আজিজ তাহের খান। সরকারী ক্রয়ে সামাজিক সচেতনতা, সিটিজেন পোর্টাল ও নাগরিক সম্পৃক্ততা বিষয়ে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ সেন্টার ফর কমিউনিকেশন প্রোগ্রামস (বিসিসিপি) এর সিনিয়র ডেপুটি ডিরেক্টর ও বিসিসি কম্পোনেন্ট, ডাইম্যাপ এর টীম লিডার খাদিজা বিলকিস। প্রশ্নোত্তর ও মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের আইএমইডি, সিপিটিইউ’র উপ-পরিচালক (উপ-সচিব) মো: নাছিমুর রহমান শরীফ ও উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ ।

প্রধান অতিথি প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তী বলেন, পাবলিক প্রকিউরমেন্ট আইন (পিপিএ), পাবলিক প্রকিউরমেন্ট বিধিমালা (পিপিআর) এবং ইলেকট্রনিক গভর্নমেন্ট প্রকিউরমেন্ট (ই-জিপি) সহ সরকারী ক্রয় ব্যবস্থা প্রাতিষ্ঠানিকিকরণে অংশীজন ও জনসাধারণের মধ্যে সচেতনতা ও উৎসাহ বৃদ্ধির প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে। তিনি বলেন, সরকারী ক্রয় ব্যবস্থা সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে সাংবাদিকদের ভূমিকা অপরিসীম। সাংবাদিকদের রিপোর্টিংয়েই আমাদের কাজে গতি ফিরে আসে উল্লেখ করে তিনি বলেন, পরিকল্পনা বাস্তবায়ন ও মূল্যায়নে আপনাদের যুগোপযোগী প্রতিবেদন আমাদের আশান্বিত করে তোলে।

সভায় উল্লেখ করা হয়, এটি সাংবাদিকদের নিয়ে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সিপিটিইউ এর তৃতীয় প্রোগ্রাম। ধারাবাহিকতা অনুসারে এ প্রোগ্রাম সারাদেশে আঞ্চলিক ভাবে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সিলেট জেলার প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকদের অংশগ্রহণে বৃহস্পতিবার বিকেল ২.৩০টা থেকে বিকেল ৫.০০টা পর্যন্ত এ প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয়। কোভিড পরিস্থিতি বিবেচনায় এটি ভার্চুয়ালী করা হয়। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সিপিটিইউ’র সম্মেলন কক্ষ থেকে এটি পরিচালনা করা হয়।

সভায় বলা হয়, ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ গড়ার পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। অর্থনৈতিক গতিবৃদ্ধি, কর্মসংস্থান ও টেকসই উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে সমুন্নত রাখতে ব্যাপক কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে। শ্রমমূল্য, সামাজিক সুবিধা, শিশু শ্রম ও নারীনীতিসহ বহু গুরুত্ব পূর্ন বিষয় উল্লেখযোগ্য ভাবে এতে স্থান পেয়েছে।

সভায় আরো বলা হয়, ই-জিপি সম্পর্কিত পোর্টাল পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সেণ্ট্রাল প্রকিউরমেন্ট টেকনিক্যাল ইউনিট (সিপিটিইউ) কর্তৃক তৈরী, গৃহীত ও পরিচালিত। ই-জিপি সিস্টেমটি সরকারের ক্রয়কারী সংস্থা (পিএ) এবং ক্রয়কারী (পিই)-সমূহের ক্রয়কার্য সম্পাদনের জন্য একটি অনলাইন প্লাটফর্ম। এটি একমাত্র ওয়েব পোর্টাল যেখান থেকে এবং যার মাধ্যমে ক্রয়কারী সংস্থা এবং ক্রয়কারী প্রতিষ্ঠানসমূহ নিরাপদ ওয়েব ড্যাসবোর্ডের মাধ্যমে ক্রয় সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যাবলী সম্পাদন করতে পারবে। ই-জিপি সিস্টেম সিপিটিইউ’তে স্থাপিত ডাটা সেণ্টারে ধারণ করা হয়েছে। ইণ্টারনেট ব্যবহার করে সরকারের ক্রয়কারী সংস্থা এবং ক্রয়কারী প্রতিষ্ঠান ই-জিপি ওয়েব পোর্টালে প্রবেশ করতে পারবে।

সভায় উপস্থিত ছিলেন সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি মুহিত চৌধুরী, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আল আজাদ, সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল সিদ্দিকী, সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি গোলজার আহমদ হেলাল, সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও বাসস’র সিলেট ব্যুরো প্রধান মকসুদ আহমদ মকসুদ, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ছামির মাহমুদ, সিলেট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ মো: রেণু, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহ দিদার আলম চৌধুরী নোবেল, সিলেট প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ও ইকবাল মাহমুদ, আরটিভির সিনিয়র রিপোর্টার কামকামুর রাজ্জাক রুনু, সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ আব্দুল মুহিত দিদার, সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের সদস্য সাজলু লস্কর, দৈনিক উত্তর পূর্বের নির্বাহী সম্পাদক তাপস দাশ পূরকায়স্থ, সময় টিভি’র স্টাফ রিপোর্টার ইকরামুল কবির, ডিবিসি নিউজের সিলেট প্রতিনিধি প্রত্যষ তালুকদার, যুগান্তরের স্টাফ রিপোর্টার মুকিত রহমানী, বাসস’র সিলেট জেলা প্রতিনিধি শুয়াইবুল ইসলাম, সাংবাদিক মানাউবী সিংহ, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সাবেক সহ-সভাপতি মনিরুজ্জামান, সিলেট জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রেহানা আক্তার, বিসিসিপি’র প্রোগ্রাম ম্যানেজার মোহাম্মদ আব্দুস সালাম প্রমুখ।

উল্লেখ্য, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের আইএমইডি’র সিপিটিইউ কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন Digitizing Implementation Monitoring and Public Procurement Project (DIMAPPP) -এর একটি অন্যতম কার্যক্রম হিসেবে Behavior Change Communication কার্যক্রম বাস্তবায়িত হচ্ছে। বিসিসিপি উক্ত কার্যক্রম বাস্তবায়নে সিপিটিইউ’র পরামর্শক প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করছে।

এ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সিপিটিইউ’র ডাইম্যাপ প্রজেক্টের আওতায় বিসিসিপি’র সহায়তায় এ ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম বাস্তবায়িত হয়।

 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ/জি.

  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ