শেরপুরের নালিতাবাড়ী পৌর শহরের প্রধান সড়কের বেহাল দশা

শেরপুরের নালিতাবাড়ী পৌর শহরের প্রধান সড়কটি সংস্কারের ৬ বছর পেরিয়ে গেলেও পুনঃসংস্কারের কোন উদ্যোগ নেই। ফলে খানাখন্দ, ধূলোবালি আর কাঁদাপানিতে দুর্ভোগ বেড়েছে চলাচলকারী মানুষের। এমতাবস্থায় শহরের ব্যস্ততম এ সড়কটি পুনঃসংস্কারের দাবী জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

জানা গেছে, ২০১৫ সালে এলজিইডি (স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর) এর আওতাধীন দ্বিতীয় শ্রেণির পৌরসভা নালিতাবাড়ী শহরের বাজার ছিটপাড়াস্থ ঢাকা বাস স্ট্যান্ড হতে শহরের উত্তর বাজার শহীদ মিনার মোড় পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার রাস্তাটি সংস্কার করা হয়। এরপর ভারি যানবাহন, যত্রতত্র সবধরণের মালামাল ও পণ্য লোড-আনলোড, যত্রতত্র পার্কিং ও পর্যাপ্ত পরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থার অভাবে দ্রুত রাস্তাটির কার্পেটিং ওঠে যায়।

অন্যদিকে, ৪ বছর অন্তর রাস্তা সংস্কারের নিয়ম থাকলেও পেরিয়ে গেছে প্রায় ছয় বছর। ফলে রাস্তাটির বিভিন্ন স্থানে কার্পেটিং ওঠে মেগাডম পর্যন্ত ওঠে গেছে। এতে করে রাস্তাটির বিভিন্ন অংশে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। শুস্ক মৌসুমে ইট-বালির ধূলো আর বর্ষাকালে কাঁদাপানিতে সয়লাব হয়ে যায় অতিগুরুত্বপূর্ণ এ রাস্তাটি। এতে করে যেমন পথচারীদের দুর্ভোগ বেড়েছে তেমনি খানাখন্দে ভরা রাস্তাটিতে চলতে গিয়েও দুর্ভোগের কমতি নেই। ঘটছে ছোটখাটো দুর্ঘটনা। এমনিতেই প্রয়োজনের তুলনায় রাস্তাটি প্রশস্ত না হওয়ায় যেখানে যানজট প্রায় নিত্যসময়ের ঘটনা। সেখানে খানাখন্দে ভরা রাস্তাটি যেন মরার উপর খাঁড়ার ঘাঁ হয়ে দাড়িয়েছে।

গত বছর ঢাকা বাস স্টেশন ও নকলা সিএনজি স্টেশনের কাছ থেকে পুরাতন মুরগীহাটি (যোগানিয়া ইউপি মোড়) এলাকায় পৃথক স্থানে বেশকিছু রাস্তা আরসিসি ঢালাই করে তৈরি করা হলেও এখনও প্রায় পৌণে এক কিলোমিটার রাস্তা চলাচলের অনুপযোগী। এমতাবস্থায় রাস্তাটি দ্রুত পুননির্মাণের দাবী ভুক্তভোগীদের। ভুক্তভোগীরা জানান, প্রতিদিন শহরের প্রধান এ সড়কটি দিয়ে শতশত পণ্যবাহী ট্রাক, পিকআপ, কাভার্ড ভ্যান, যাত্রীবাহী বাস ছাড়াও রিকশা, অটোরিকশা, অটোবাইক, মোটরসাইকেল এসব যাবাহন চলাচলের সংখ্যা কয়েক হাজার। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষের পদচারণা তো রয়েছেই। সবমিলিয়ে শহরের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এ রাস্তাটি মেরামত অতিজরুরী।

দক্ষিণ বাজারের ব্যবসায়ী ফজলুর রহমান জানান, রাস্তাটি এখন চলাচল অনুপযোগী। শহরের সবচেয়ে বেশি ব্যস্ততম এ সড়কটি পুননির্মাণ না হওয়ায় বর্তমানে দুর্ভোগের শেষ নেই। প্রতিদিন রিকশা, ভ্যান ও মোটরসাইকেলসহ ছোট ছোট যান চলাচলে দুর্ঘটনা ঘটছে। ট্রাক, বাস ও কাভার্ড ভ্যানসহ ভারী যানবাহন চলাচল করা এ রাস্তাটিতে খানাখন্দক থাকায় বেড়েছে যানজট।

এ ব্যাপারে নালিতাবাড়ী উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, শহরের দক্ষিণ বাজার থেকে উত্তর বাজার পর্যন্ত ৬৭৭ মিটার রাস্তা পুনঃনির্মাণ প্রয়োজন। ইতিমধ্যেই আমরা দক্ষিণ বাজার ঢাকা বাস স্টেশন এলাকা থেকে নকলা সিএনজি স্টেশন এলাকা এবং দক্ষিণ বাজার সোনালী ব্যাংক মোড় থেকে মধ্যবাজার পর্যন্ত পৃথকভাবে ২৮৫ ও ৩৫০ মিটার রাস্তা আরসিসি ঢালাই নির্মাণের জন্য প্রস্তাবনা পাঠিয়েছি। প্রস্তাবনা অনুমোদন হলে কাজ দ্রুত শুরু করা হবে।

 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ/এস.

  • 25
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ