কাশিয়ানীতে ‘ভুয়া’ খবরে বিভ্রান্ত ইউপি চেয়ারম্যান!

ইউটিউব টিভি চ্যানেলের একটি ভুয়া ভিডিও নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান ও সাধারণ মানুষের মাঝে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে।

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার পারুলিয়া ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটেছে। ভুয়া ভিডিও ক্লিপটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

ছড়িয়ে পড়া ভিডিওটি ভুয়া ও বিভ্রান্তমূলক উল্লেখ করে ইউপি চেয়ারম্যান শেখ মকিমূল ইসলাম মকিম এক প্রতিবাদ লিপিতে বলেন, গত ৬ জুলাই একটি অনলাইন টিভিতে আমাকে জড়িয়ে ‘কাশিয়ানীতে ‘জমি আছে, ঘর নাই’ প্রকল্পের তিনটি ঘর নির্মাণের দায়িত্ব নিয়ে নিম্নমানের ম্যাটেরিয়ালস ব্যবহার করা হয়েছে। শিরোনামে একটি ভিডিও নিউজ প্রকাশ করা হয়। ভিডিওটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে- দীর্ঘ এক বছর ধরে কাজ করলেও আজও বসবাসের উপযোগী হয়নি। বড় অংশের অর্থ আত্মসাৎ করা হয়েছে। হাজারো অনিয়ম ও দেয়াল ফেটে যাওয়ার কথা বলা হয়েছে।

প্রকৃতপক্ষে ঘরটি সরকারি কোন প্রকল্পের কাজ না। জাতীয় সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব ড. জাফর খানের নিজস্ব অর্থায়নে ঘরগুলো নির্মাণ করা হচ্ছে। কাজটি কাশিয়ানী ইউএনও ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার তদারকি ও সমন্বয়ে বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। করোনার কারণে যথাসময়ে নিমার্ণ কাজ সম্পন্ন হয়নি। যার কারণে এখনও কাউকে ঘর বুঝে দেওয়া হয়নি। এখনও নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। সেখানে অনিয়ম ও ত্রুটির কোন প্রশ্নই আসে না।

তিনি এ ভুয়া খবরের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে আরো বলেন, কোন সাংবাদিক আমার সাথে এ ব্যাপারে কথা বলেননি। আমাকে নিয়ে সংবাদ প্রকাশ আমি কিছু জানলাম না। এটা নিচ্ছুক অপসাংবাদিকতার শামিল বলে মনে করেন তিনি।

কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রথীন্দ্রনাথ রায় বলেন, ‘ঘর তিনটি কোন সরকারি প্রকল্পের কাজ না। ঘরগুলোর নির্মাণ কাজ এখনও চলমান রয়েছে। কাউকে ঘর বুঝিয়ে দেয়া হয়নি।

 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ/এল.

  • 43
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ