নোয়াখালীতে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করায় গ্রেফতার, এমপি একরামের অনুসারী ১১ নেতা কর্মীর জামিন

আওয়ামীলীগের তিন গ্রুপের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচী ঘিরে নোয়াখালীর পৌর এলাকায় সোমবার চলমান ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে মাইজদী শহরে মিছিল বের করার চেষ্টা করলে পুলিশের হাতে আটক হওয়া স্থানীয় সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর অনুসারী ১১ নেতা কর্মী জামিন পেয়েছেন।

মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) বিকালে তাদেরকে নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের সাঈদ আল নাঁহীর আদালতে হাজির করে সুধারাম থানা পুলিশ। শুুনানী শেষে তাদেরকে জামিন দেয় আদালত। নোয়াখালী কোর্ট পরিদর্শক-১ মো.শাহ আলম এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জামিন প্রাপ্ত রা হচ্ছেন জাহিদুল ইসলাম (১৯), বিজয় রবি দাস (১৯), হাবিবুর রহমান (১৮), ইফরান আহাম্মেদ (২০), জাহিদ হোসেন (১৮), বিজয় (১৪), মো.রাসেল (২১), মোঃ আরজু (২৫), মোঃ জিহাদ (২০), মাহফুজুর রহমান (২১), মো. সোহেল (২৯)।

স্থানীয়দের ভাষ্যমতে, আওয়ামীলীগের তিন গ্রুপের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচী গিরে নোয়াখালী পৌর এলাকায় সোমবার সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করেন জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও ডিসি খোরশেদ আলম। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ১৪৪ ধারা অমান্য করে স্থানীয় সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর অনুসারী ৩০-৪০ জনের একটি দল নোয়াখালী গণপূর্ত ভবন থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে জেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয় যাওয়ার পথে পুলিশি বাধার মুখে পড়ে। এক পর্যায়ে পুলিশের সঙ্গে মিছিল কারীরা হাতাহাতিতে লিপ্ত হয়। এসময় পুলিশ লাঠি চার্জ করে এবং ১১ নেতা কর্মীকে আটক করে সুধারাম থানায় নিয়ে যায়। এই ঘটনায় সোমবার রাতে সুধারাম মডেল থানার এসআই সুজন বাদী হয়ে ১৮৮ ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় আটক ১১ নেতা কর্মীকে মঙ্গলবার বিকালে আদালতে হাজির করা হয়।

নোয়াখালী কোর্ট পরিদর্শক-১ শাহ আলম বলেন শুনানী শেষে আদালত ১১ আসামীর সবাইকে মামলা থেকে অব্যহতি দিয়ে দেয়।

নোয়াখালী শহর আওয়ামীলীগের সভাপতি আবদুল ওয়াদুদ পিন্টু বলেন আটককৃত ১১ জনের মধ্যে দুই এক জন আমাদের লোক ছিল। বাকিরা বিভিন্ন উপজেলার। তাদেরকে আদালতে হাজির করলে সবাইকে জামিন দিয়ে দেন। আসামীদের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট নুর আলম জিকু।

 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ/জি.

  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ