কুড়িগ্রামে তিস্তা নদীর ভাঙ্গন ঠেকাতে ও নদী সংস্কারের দাবিতে মানববন্ধন

সর্বনাশা তিস্তা নদীর অকল্পনীয় ভাঙ্গন ঠেকাতে ও নদী সংস্কারের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। ৬ সেপ্টেম্বর সকালে কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট উপজেলার ঘড়িয়াল ভাংগা ইউনিয়নের গতিয়াশাম এলাকাসাসীর আয়োজনে।

এতে বক্তব্য রাখেন তিস্তা বাঁচাও নদী বাঁচাও সংগ্রাম পরিষদের কেন্দ্রীয় নেতা ও বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড.তুহিন ওয়াদুদ, তিস্তা বাঁচাও নদী বাঁচাও সংগ্রাম পরিষদের কেন্দ্রীয় নেতা ও লালমনিরহাট বার্তার সম্পাদক গেরিলা লিডার ড. এস এম শফিকুল ইসলাম কানু, ঘড়িয়াল ভাংগা ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য শহিদুল ইসলাম ও মহুবর রহমান, রাজারহাট প্রেস ক্লাব সভাপতি সেকেন্দার আলী বাবলু, প্রথম আলো কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধি শফি খান,জু সরকার, স্থানীয় ব্যবসায়ী ওয়াজেদ আলী প্রমূখ।

গত কয়েক সপ্তাহে তিস্তা নদী ভাঙ্গনে গতিয়াশাম এলাকায় প্রায় ১ হাজার পরিবারের বসতভিটা, ঘড় বাড়ী, গাছ পালা, আবাদি জমি এবং মসজিদ, মক্তব, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নদী গর্ভে বিলিন হয়ে যায়। বক্তাগন তিস্তা মহাপরিকল্পনার দ্রুত বাস্তবায়ন ও গতিয়াশাম এলাকায় তিস্তা নদীর ভাঙ্গন ঠেকাতে জরুরী ভিত্তিতে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়ার জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানান। সভায় নদী ভাঙ্গনে বিপর্যস্ত এলাকায় সংসদ সদস্য, জেলা প্রশাসক, উপজেলা নিবার্হী অফিসার ও পানি উন্নয়ন র্বোডের কোন কর্মকর্তা পরিদর্শনে না আসায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। এই সকল ব্যক্তিদের কর্তব্যে অবহেলা ও জনগনের প্রতি অবজ্ঞা প্রদর্শন করায় প্রধান মন্ত্রীর নিকট প্রতিকার দাবি করা হয়।

বক্তাগন নদী ভাঙ্গনে ক্ষতি গ্রস্ত পরিবার গুলোর মাঝে সরকারি সহায়তার পাশাপাশি তাদের নদী গর্ভে বিলিন হওয়া বসত ভিটা ও আবাদি জমির ক্ষতি পূরন দেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানানো হয়। মানববন্ধনে কয়েক‘শ স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ ও ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্ত নর-নারী, শিশু ও আবাল বৃদ্ধ বনিতা অংশ গ্রহন করেন।

 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ/আর.

  • 57
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ