কানাডায় ৪৪তম ফেডারেল নির্বাচনে এবার সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশি প্রার্থী!

আর মাত্র দুই সপ্তাহ পর অর্থাৎ ২০ সেপ্টেম্বর কানাডায় ৪৪তম ফেডারেল নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এবারের নির্বাচনে সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশি প্রার্থী অংশ নিচ্ছেন। ইতোপূর্বে ছয় প্রার্থীর খবর জানা গেছে। সর্বশেষ তথ্য মোতাবেক সর্বমোট আট জন বাংলাদেশি-কানাডিয়ান প্রার্থীর নাম পাওয়া গেলো।

ফলে কানাডার মূলধারার রাজনৈতিক লিবারেল থেকে একজন, কনজার্ভেটিভ পার্টি থেকে দুই জন, এনডিপি থেকে চার জন এবং একজন গ্রিন পার্টি থেকে মনোনয়ন পেলেন আট বাংলাদেশি। গত পহেলা সেপ্টেম্বর ছয় প্রার্থীর কথা উল্লেখ করা হয়েছিলো। অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে বাকী দুই জন হচ্ছেন- নামির রহমান এবং সানি মীর।

বগুড়ার নামির রহমান ঢাকায় বেড়ে উঠা এবং পড়শোনার পর করে পঁচিশ বছর আগে কানাডায় অভিবাসী হন। তিনি ইত্তেফাককে জানান, এখানে উইনজর ভার্সিটিতে পলিটিক্যাল সাইন্স নিয়ে পড়াশোনা করার সময় থেকেই তিনি এন ডি পি’র সাথে জড়িত। নামির আলবাট্রার প্রিমিয়ার রিচল নটলি’র রাজনৈতিক উপদেষ্টা ছিলেন। এবার তিনি তৃতীয় বারের মতো নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। এবারও একই আসন অর্থাৎ নায়গ্রা উয়েস্ট আসন থেকে এনডিপি’র প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন। বিগত দুই নির্বাচনে কঞ্জারভেটিভ পার্টির ডিন এলিসিনের কাছে হেরে যান। তিনি এনার্জি মিনিষ্টির সিনিয়ন এডভাইজার হিসেবে নিয়োজিত।

নামির রহমান আরও বলেন, এক সময় বাংলাদেশি হিসেবে আমি একাই মুলধারার রাজনীতিতে নির্বাচন করেছি। এখন বাঙালিরা সচেতন হয়েছে, মূলধারার রাজনীতিতে যুক্ত হচ্ছে, এটা খুবই ইতিবাচিক দিক। তিনি তার দলের এমপিপি ডলি বেগমের বিজয়ের কথা উল্লেখ করে বলেন, আমরা এর ফলাফলও পেয়ে শুরু করেছি। আগামীতে আরো এগিয়ে যাবে বাংলাদেশিরা।

অশোয়া আসন থেকে গ্রিন পার্টি থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন তরুণ প্রজন্মের বাংলাদেশি-কানাডিয়ান সানী মীর। ঢাকার সিদ্ধেশরীর সন্তান সানী ইতোপূর্বে টরন্টো থেকে সিটি কাউন্সিলর পদে নির্বাচনের প্রার্থী হয়েছিলেন।

এবার কেন্দ্রীয় নির্বাচনে যুক্ত হলেন। গ্রিন পার্টি থেকে মনোনয়্ন সম্পর্কে তিনি ইত্তেফাককে বলেন, আমার মনোনয়ন অনেকটা কাকতলীয়। আমার ম্যানেজার সফুরা খাতুন আমার পক্ষে প্রার্থী হওয়ার জন্য গ্রিন পার্টিতে আবেদন করেন। আমার সম্পর্কে খোঁজ-খরব, তথ্যাদি নিয়ে গত শুক্রবার গ্রিন পার্টি সবুজ সংকেত দিয়ে আমার নাম ঘোষণা করে। ফলে আমি কিছুটা অবাক হই। আমিও গ্রিন পার্টি রাজনৈতিক আদর্শে অনুপ্রাণিত। ফলে আমি এখন পুরো দমে রাতদিন নির্বাচনী প্রচার নিয়ে ব্যস্ত।

নামির এবং মীর ছাড়া বাকী ছয় প্রার্থীরা হচ্ছেন- অন্টারিও প্রদেশের অশোয়া আসনে সরকারি দল লিবারেল থেকে আফরোজা হোসেন, টরন্টোস্থ স্কারবোরো সাউথ-ওয়েস্ট আসনে কনজার্ভেটিভ পার্টি থেকে মহসিন ভূইয়া, এনডিপি থেকে স্কারবোরো সেন্টার আসনে ফাইজ কামাল, আলবাট্রার এনডিপি থেকে খালিস আহমেদ তমাল এবং ক্যালগরি থেকে এনডিপির গুলশান আক্তার এবং মেট্রো ভ্যাঙ্কুভারের সোরি-নিউটন আসনে কনজারভেটিভ পার্টির সৈয়দ মহসিন।

ডেইলিরুপান্তর/আবির

  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ