শেরপুরে আদালতের নির্দেশে কবর থেকে শিক্ষার্থীর মরদেহ উত্তোলন!

শেরপুরে আদালতের নির্দেশে ময়না তদন্ত ও ফরেনসিক্সের জন্য কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে মেধাবী ছাত্র আবু সাঈদের মরদেহ। ১ সেপ্টেম্বর বুধবার সকালে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিজানুর রহমানের উপস্থিতিতে তার মরদেহ উত্তোলন করা হয়। নিহত আবু সাঈদ শেরপুর সদর উপজেলার গাজীরখামার ইউনিয়নের শালচূড়া গ্রামের নূর হোসেনের ছেলে।

নিহত সাঈদের পরিবারের অভিযোগ, গত ১১ জুন রাতে আবু সাঈদকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় সাঈদের বন্ধু ও হত্যা মামলার আসামী আতিক মিয়া, জাকির, তরিকুল ইসলাম, ডাঃ সোয়েব, শারমীন সুলতানা ডেইজি। পরে তারা প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সহযোগিতায় পরিকল্পতিভাবে তাকে হত্যা করে। পরে ওই হত্যাকান্ডকে তারা সু-কৌশলে সড়ক দুর্ঘটনা বলে চালিয়ে দেয়।

এদিকে গত ২৭ জুন বিজ্ঞ সি.আর আমলী আদালতে মামলা দায়ের করা হলে ২২ আগস্ট শেরপুর সদর থানায় মামলাটি এফ.আই.আর ভুক্ত করা হয়। মামলা দায়েরের পর আসামীরা বিভিন্নভাবে হুমকি ও মামলা তুলে নিতে চেষ্টা করে।

এ ঘটনার পর আবু সাঈদের পরিবার মরদেহের ময়না তদন্ত করার দাবী জানালে আদালত তা মঞ্জুর করেন।

 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ/এস.

  • 12
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ