বাল্য বিয়ে বন্ধ করল পুলিশ, বর-কনের মা-বাবাকে অর্থদন্ড

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে পুলিশের হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেল অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রী। মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) দুপুর ৩টার দিকে উপজেলার ২নং চর জুবলী ইউনিয়নের চর ব্যাগা গ্রামে এ ঘটানা ঘটে। ওই স্কুল ছাত্রী বিবি ফাতেমা (১৫) ওই গ্রামের জামাল উদ্দিনের মেয়ে এবং স্থানীয় পাঙ্কার বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী।

চরজব্বর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.জিয়াউল হক জানান, কনের মা লক্ষীপুর জেলার রামগতি উপজেলার চরকাজী ইউনিয়নের এক ছেলের সাথে মেয়ের বিয়ে ঠিক করেন। পূর্ব নিধারিত তারিখ অনুসারে আজ দুপুরে কনের বাড়িতে মূল বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল। সুবর্ণচর থানার একদল টহল পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে ওই বাল্য বিবাহ বন্ধ করে আমাকে অবহিত করে। তাৎক্ষণিক আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবহিত করলে তিনি কনের মাকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের আওতায় এনে দশ হাজার টাকা অর্থদন্ড করেন। বরের জন্য খবর পাঠানো হয়েছে। এলে তাদের বিরুদ্ধে ও আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সুবর্ণচর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা (ইউএনও) চৈতী সর্ববিদ্যা বলেন, বাল্য বিয়ে আয়োজন করায় বাল্য বিয়ে নিরোধ আইনে   কনের মাকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে দশ হাজার টাকা অর্থদন্ড করা হয়েছে। বরের বাবাকে আটক করা হয়েছে। বরের জন্য খবর দেওয়া হয়েছে। বর এলে বর পক্ষের বিরুদ্ধেও আইনগত প্রদক্ষেপ নেওয়া হবে। তবে বর না আসলে তার পিতাকে কারাগারে পাঠানো হবে।

 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ/জি.

  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ