নিরাপদ নগরীর তালিকায় ঢাকার উন্নতি

নিরাপত্তার দিক থেকে বিশ্বের নগরীগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার দুই ধাপ উন্নতি হয়েছে। দ্য ইকোনমিস্ট ইন্টিলিজেন্স ইউনিটের ‘সেইফ সিটি ইনডেক্সে’ এবার ঢাকার স্থান হয়েছে ৬০টি নগরীর মধ্যে ৫৪ নম্বরে।
ইকোনমিস্ট গ্রুপের এ গবেষণা সংস্থার এই সূচকে ২০১৯ সালে ঢাকা ছিল ৫৬ নম্বরে, অর্থাৎ দুই ধাপ অগ্রগতি হয়েছে দুই বছরে।

অবকাঠামো, স্বাস্থ্যসেবা, ব্যক্তিগত নিরাপত্তা, পরিবেশগত সুরক্ষা, ডিজিটাল পরিস্থিতি- এমন ৭৬টি নিয়ামকের ভিত্তিতে নম্বর দিয়ে এ তালিকার ক্রম সাজানো হয়েছে।
ঢাকার স্কোর দাঁড়িয়েছে ৪৮ দশমিক ৪। ডেনমার্কের রাজধানী তালিকায় শীর্ষে স্থান পেয়েছে ৮২ দশমিক ৪ নম্বর নিয়ে। আর তালিকার সবচেয়ে নিচে থাকা মিয়ানমারের ইয়াংগুন নগরীর নম্বর ৩৯ দশমিক ৫।
পরিবেশ সুরক্ষার দিকে থেকে ঢাকা কিছুটা এগিয়েছে, এ নিয়ামকের ভিত্তিতে ঢাকার ক্রম ৪৭। কিন্তু ডিজিটাল নিরাপত্তার দিক থেকে পেছনে ৫৬ নম্বরে। স্বাস্থ্যসেবা, অবকাঠামো ও ব্যক্তিগত নিরাপত্তার ক্ষেত্রে ঢাকার অবস্থান যথাক্রমে ৫২, ৫৫ ও ৫৪ ক্রমতে।
দক্ষিণ এশিয়ায় ঢাকার পেছনে রয়েছে করাচি, ইয়াংগুনের এক ধাপ সামনে আছে পাকিস্তানের নগরীটি। ভারতের মুম্বাইয়ের অবস্থান ৫০ নম্বরে, তার দুই ধাপ সামনে আছে দেশটির রাজধানী শহর নতুন দিল্লি।
তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কানাডার টরোন্টো। সামনের সারিতে আরও রয়েছে টোকিও, সিঙ্গাপুর, ওসাকা।
দ্য ইকোনমিস্ট ইন্টিলিজেন্স ইউনিটের চতুর্থ বার করা এ তালিকায় আগের মতোই শীর্ষ ১০-এ আছে আমস্টারডাম, মেলবোর্ন, সিডনি। এবং শহরগুলোর স্কোরের পার্থক্য সামান্য।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এটা স্পষ্ট যে আয় ও স্বচ্ছতা-জবাবদিহিতা ভালো স্কোর গড়ার মূল নির্ণায়ক। মানব উন্নয়ন সূচকে যে সব নগরীর স্কোর বেশি, সেটিও তালিকায় উপরের দিকে তুলতে সহায়তা করেছে।

জাতীয়/এসডি

  • 30
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ