অবসরের আলোচনা একপাশে রেখে ভালো সিরিজের প্রত্যাশা রিয়াদের

দীর্ঘ চার বছর পর বাংলাদেশের মাটিতে খেলতে এসে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি সিরিজও বটে। এরপূর্বে কখনো দ্বিপাক্ষীক সিরিজ খেলা হয় নি বাংলাদেশ বনাম অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার। আগামীকাল সন্ধ্যা ছয়টা শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত সিরিজের প্রথম।

একে তো করোনার প্রাদুর্ভাব তার উপর ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার দেয়া কঠিন সব শর্ত। সেখানে মাঠে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের দেখা পাওয়াটা প্রায় কঠিন। অবশেষে ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে বাগে পাওয়া গেল সদ্য টেস্ট থেকে অবসরের ঘোষণা দেয়া সীমিত ওভারের অধিনায়ককে। তাই তো তার দিকে প্রথম প্রশ্নই গেল অবসরের ব্যাপারে খোলাসার ব্যাপারে। তবে, এই ব্যাপারে কোন খোলাসা না করে সংশয়ই জিইয়ে রাখলেন রিয়াদ। তার ভাষ্যে,

‘একটা জিনিস পরিষ্কার করে বলতে চাই। শুধু এই সিরিজ নিয়েই আমি এখন ভাবছি। এ বিষয়ে আপনাদের শিগগিরই জানাতে পারব।’

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঘরের মাঠে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। সচরাচর এই সুযোগটা পাওয়া প্রায় দুঃসাধ্য। এবার অজিদের বাগে পেয়ে কি জয়ের সুযোগটা নিবে বাংলাদেশ। মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের ভাষায় সেরা সুযোগ বলাটা কঠিন। তবে রিয়াদ মনে করেন টি-টোয়েন্টি সংস্করণে নির্দিষ্ট দিনে ভালো খেলতে বড় যে কোন দলকেই হারানো সম্ভব। তিনি বলেন,

‘সেরা সুযোগ কি না, সেটা বলা এ মুহূর্তে কঠিন। তারা টি-টোয়েন্টিতে ভালো দল, ভালো ক্রিকেট খেলেই তাদের হারাতে হবে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হলো আমরা আমাদের দক্ষতা পরিস্থিতি অনুসারে কতটা প্রয়োগ করতে পারছি, সেটির ওপর অনেক কিছু নির্ভর করে। আমার মনে হয়, ভালো একটা সিরিজ হবে।’

‘আমি ব্যক্তিগতভাবে বিশ্বাস করি, টি-টোয়েন্টি সংস্করণটাই এমন। আপনি যত ওপরের র‍্যাংকিংয়ের দলই হোক না কেন নির্দিষ্ট দিনে যদি ভালো খেলতে পারেন, তাহলে যেকোনো দলকেই হারাতে পারবেন।’

স্টিভ স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার, মারনেস লাবুশেনদের মতো তারকারা নেই বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজে। তাছাড়া বাংলাদেশ দলেরও নিয়মিত মুখ তামিম, মুশফিক এবং লিটন দাসকে দলে পাচ্ছে না টাইগাররা। তবে সিনিয়র ক্রিকেটারদের মিস করলেও নিজের বর্তমান দলের উপরই আস্থা মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের। তার ভাষ্যে,

‘ওদের গুরুত্বপূর্ণ কিছু খেলোয়াড় আসেনি, একই সঙ্গে আমরাও আমাদের কিছু গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়কে পাচ্ছি না। লিটন, তামিম, মুশফিককে মিস করতেছি। এটা আমাদের দলের ও ক্রিকেটারদের জন্য বড় সুযোগ নিজেদের অবস্থান দেখানো যে আমরা ঘরের মাঠে ভালো একটা দল।’

ডেইলিরূপান্তর/আরএ

  • 106
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ