মহাদেবপুরে নির্যাতিত সেই কিশোরের দায়িত্ব নিলেন পুলিশ সুপার আব্দুল মান্নান  

নওগাঁর মহাদেবপুরে মোবাইলের সিম চুরির অপবাদ দিয়ে হাত-পা বেঁধে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনের শিকার কিশোর শিহাব হোসেনের চিকিৎসাসহ যাবতীয় দায়িত্ব নিয়েছেন নওগাঁর মানবিক পুলিশ সুপার প্রকৌশলী মো: আব্দুল মান্নান মিয়া বিপিএম।

ওই কিশোর এখন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। শনিবার (৩১ জুলাই) বিকেলে পুলিশ সুপারের পক্ষে নওগাঁ সদরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম) গাজিউর রহমান, মহাদেবপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এটিএম মাইনুল ইসলাম ও মহাদেবপুর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ হাসপাতালে গিয়ে শিহাবের চিকিৎসার খোঁজখবর নেন। তারা আহত শিহাবের মায়ের হাতে তার জন্য শার্ট, প্যান্ট, বিভিন্ন ফলসহ খাবার ও নগদ টাকা হস্তান্তর করেন।

উল্লেখ্য, শুক্রবার সকালে উপজেলার ভীমপুর ইউনিয়নের নওগাঁ-রাজশাহী আঞ্চলিক মহাসড়কের বাগাচারা নামক স্থানে নির্মাণাধীন অটোগ্যাস ফিলিং স্টেশনের নৈশ প্রহরী বকুল হোসেন বাগাচারা গ্রামের দরিদ্র টমটম চালক খোরশেদ আলমের ছেলে ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র শিহাব হোসেনকে মোবাইলের সিম চুরির অপবাদ দিয়ে স্টেশনের একটি ঘরে আটকে রেখে হাত-পা বেঁধে মধ্যযুগীয় কায়দায় বেদম প্রহার করে। পরে জানতে পেরে শিহাবকে উদ্ধার করে মারাত্মক আহত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়।

পুলিশ সুপার সম্প্রতি হারিয়ে যাওয়া এক বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে পরিবারের কাছে পৌঁছে দিয়েছেন। অসহায় তৃতীয় লিঙ্গের সদস্যদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন। নগদ অর্থ সহায়তা দিয়েছেন এক বয়স্ক রিকশা চালককে। কয়েকদিন আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া বাবাহারা শিশু মরিয়মের পাশেও দাঁড়িয়েছেন মানবিক এ পুলিশ সুপার।

ডেইলিরূপান্তর/আরএ

  • 167
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ