নড়াইলে চলন্ত ট্রাকে ধাক্কা দিয়ে হত্যার চেষ্টা!

বাদীর অভিযোগ প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে আসামিরা

নড়াইলে ফসিয়ার মোল্যা (৬৫) নামে এক ব্যবসায়ীকে মারধরের পর চলন্ত ট্রাকের সামনে ফেলে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। ট্রাকের চাপায় তার ডান পায়ের গোড়ালি থেতলে গেছে। বর্তমানে তিনি সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ ঘটনায় আহতের ছেলে হবখালী ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতিসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলা করলেও আসামিরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বুধবার সদরের হবখালী ইউনিয়নের ডাঙ্গা সিঙ্গিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ডাঙ্গা সিঙ্গিয়া গ্রামের ফসিয়ার মোল্যা বাড়ির পার্শ্বে নড়াইল-মাগুরা সড়কের পার্শ্বে মুদি ব্যবসা করেন। বুধবার (২৮ জুলাই) সকাল ১০টার দিকে তিনি দোকানের সামনে দাড়িয়ে ছিলেন। এ সময় মামলার প্রধান আসামি মনিরুল মোল্যার হুকুমে ডাঙ্গা সিঙ্গিয়া গ্রামের হাসান শেখসহ ৮জন ফসিয়ারকে বেদমভাবে মারপিট করে মাগুরা থেকে নড়াইলগামী একটি ট্রাকের সামনে ফেলে দেয়। এ সময় তার ডান পায়ের হাটুর গোড়ালি চাকার নীচে পড়ে থেতলে যায় এবং শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ক্ষতবিক্ষত হন। পরে তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নড়াইল সদর হাসপাতালের দায়িত্বপ্রাপ্ত আবাসিক মেডিকেল অফিসার সুজল বকশি জানান, এ রোগির বিষয়ে তার জানা নেই। তবে তার সম্পর্কে খোঁজ-খবর নিয়ে জানাতে পারব।

আহত ব্যবসায়ী ফসিয়ারের পূত্র আজিজুল ইসলাম অভিযোগে জানান, সম্প্রতি হাসান আমাদের দোকানে ডিজেল তেল বাকিতে কিনতে গেলে আব্বা আগের পাওনা ১৩ টাকা পরিশোধ না করলে তেল দেবে না জানিয়ে দেওয়ায় সে ক্ষেপে যায়। এছাড়া স্থানীয় নবগঙ্গা নদীর তীরে পাটকাঠি রাখাকে কেন্দ্র করে হাসানের সাথে আব্বার মনোমালিন্য চলছিল।

এ ব্যাপারে মামলার প্রধান আসামি হবখালী ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মনিরুল মোল্যা বলেন, হাসান ও ফসিয়ার দুজনে জড়াজড়ি করতে গিয়ে ফসিয়ার রাস্তার ওপর পড়ে গেলে ট্রাকের ধাক্কায় সে আহত হয়। তাকে ট্রাকের সামনে ধাক্কা দেওয়ার কথা অস্বীকার করেন।

এ মামলার বাদী আহতের পূত্র মহসিন মোল্যা জানান,আমার চোখের সামনে আসামিরা আমার পিতাকে চলন্ত গাড়ির সামনে ফেলে দেয়। আমরা এর সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি। আসামি হাসান ছাড়া বাকি আসামিরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে বলে জানান।

এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা অপু মিত্র বলেন, বাদীর অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আসামিদের গ্রেফতার করতে গত শনিবার রাতেও অভিযান চালানো হয়েছে। আসামিরা কেউ যদি এলাকার শান্তি বিঘিœত করার চেষ্টা করে তাহলে অবশ্যই আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেব। 

ডেইলিরূপান্তর/আরএ

  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ