শ্রীমঙ্গলের সর্বজন প্রিয়মুখ নাট্যকর্মী মৌসুমি আর নেই

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার শহরতলী নাট্যকর্মী মৌসুমী নাগ মৌ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। তিনি ৮ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন।

গতকাল মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৬টার দিকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধিন অবস্থায় মারা যান তিনি। মৌসুমী নাগ মৌ শ্রীমঙ্গলের সংবাদকর্মী পঙ্কজ কুমার নাগের স্ত্রী , তিনি  ঐত্যিবাহী শ্রীমঙ্গল থিয়েটারের নাট্য বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন। এছাড়াও কালিঘাট চা বাগান কিশোরী ক্লাবের আবৃত্তির শিক্ষক হিসেবেও কাজ করতেন।

অসংখ্য পথ নাটক, মঞ্চ নাটকের পাশাপাশি দেশ বিদেশের বিভিন্ন টেলিভিশনের ধারাবাহিক ও নাটকে কাজ করছেন তিনি।

শ্রীমঙ্গল থিয়েটারের কোষাধ্যক্ষ রুপক দত্ত বলেন, মৌসুমী আমাদের থিয়েটারে একজন নিবেদিত প্রান ছিলো। সে মঞ্চ নাটক, পথ নাটকসহ বিভিন্ন টেলিভিশনের ধারাবাহিক ও প্যাকেজ নাটকে অভিনয় করেছে। তার মৃত্যুতে আমাদের শ্রীমঙ্গলের নাট্যাঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

পরিবারে তার স্বামী ও ১১ বছরের পুত্র সন্তান রয়েছে। তাদের তিন জনের সংসারে অনাবিল সুখ ছিলো। মৌসুমীর স্বামী সব কিছুতে তাকে নিয়ে আসতো। একটি পরিবার থেকে সুখ চলে গেলো।

পরিবার সুত্রে জানা যায়, গত ৮ জুলাই তিনি শারীরিকভাবে অসুস্থতা বোধ করলে বাসায় রেখে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে গত ১৫ জুলাই তাকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার নমুনা পরীক্ষায় রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালের আইসিইউ ইনচার্জ ও এনেস্থেসিওলজিস্ট ডা. এনাম উর রশীদ দীপু বলেন, প্রথম যখন আমাদের হাসপাতালে মৌসুমী নাগ ভর্তি হন তখন আমাদের আইসোলেশনে ছিলেন। তারপর তার হাই ফ্লো অক্সিজেন দেয়ার প্রয়োজন দেখা দেয়।

পরবর্তীতে আমরা তাকে আইসিইউ বেডে নিয়ে আসি। হাই ফ্লো অক্সিজেন শুরুর সাথে সাথে প্রয়োজনীয় সব ঔষুধ দেওয়া হয়।

তিনি বলেন, অক্সিজেন হাইফ্লো দিয়ে দিলেও মৌর অবস্থা ক্রমশ খারাপের দিকে যাচ্ছিলো। একে তো কোভিড নিউমোনাইটিস তার উপর তিনি অন্তঃসত্ত্বা। তিনি তাই অনেকটাই কম ইমিউনিটিতে ভুগছিলেন। গত ৩/৪ দিন অনেক চেষ্টা করার পরও আমরা তাকে বাঁচাতে পারলাম না।

ডেইলিরূপান্তর/আরএ

  • 44
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ