ছাত্রলীগ থেকে অব্যাহতি নিলেন নতুন প্রজন্মর সোনালী অর্জন রাজেশ সরকার

সিলেট মহানগর ছাত্রলীগ নেতা

ফাইল ছবি

ছাত্রলীগের রাজনীতি থেকে অব্যাহতি নিলেন সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের অন্যতম নেতা, সিলেট ছাত্রলীগের নতুন প্রজন্মর সোনালী অর্জন রাজেশ সরকার। তিনি বিগত কমিটিতে সভাপতি প্রার্থী ছিলেন।। দীর্ঘ ৪ বছর কেটে যাওয়ার পরেও সিলেটে কোনো কমিটি হয়নি। ফলে  অনেকটি মান অভিমান করে ছাত্রলীগের রাজনীতি থেকে অব্যাহতি নিলেন রাজেশ সরকার।

রাজেশ সরকার বঙ্গবন্ধুর আদর্শের এক তরুণ নেতার নাম। যিনি সেই ওয়ান ইলিভেন থেকে ছাত্রলীগের  রাজনীতির সকল আন্দোলন সংগ্রামে অগ্রণি ভুমিকা পালন করে আাসছিলেন। যেখানে আওয়ামী লীগের অনুষ্ঠান সেখানে ছিলো রাজেশ সরকারের ছাত্রলীগের কর্মী নিয়ে অবস্থান।

এবার সিলেট মহানগর ও জেলা ছাত্র লীগের কমিটি নিয়ে যদিও পদ বাগিয়ে নিতে লবিংয়ে ব্যস্ত সিলেট ছাত্রলীগের ৬ গ্রুপের নীতিনির্ধারকরা। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদ নিয়ে চলছে কাড়াকাড়ি। তবে ছাত্রলীগের বিগত কমিটিতে সভাপতি পদে আসতে না পারায় অনেক কষ্ট বুকে নিয়ে রাজেশ সরকার

 ছিলেন ছাত্রলীগের সাথে সকল আন্দোলন সংগ্রামের সামনের সারিতে।

তবে দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অবশেষে সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের জন্য ১৩ মার্চ সিলেট রিকাবীবাজারস্থ নজরুল অডিটোরিয়ামে কর্মী সভার আয়ােজন করেছিলো কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ । এর আগেই ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে ছাত্রলীগের রাজনীতি থেকে অব্যাহতি নিলেন সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের অহংকার “রাজেশ সরকার”। তার এই স্ট্যাটাসে অনেকেই হতাশ হয়েছেন, দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

নিচে তার স্ট্যাটাসটা হুবহু দেওয়া হলো- “পৃথিবীতে কেহ কারাে জন্য জায়গা ছেড়ে দেয় না । রাজনীতিতে সেটা আরও বেশি কার্যকর । কিন্তু আমি ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য ছাত্রলীগে আমার স্থান স্বেচ্ছায় ছেড়ে দিলাম । ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য অনেক শুভ কামনা রইলাে । ভালাে থেকো আমার রক্তের বন্ধন , আত্মার আত্মীয় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। তােমার জন্য আমার ভালােবাসা থাকবে আজীবন “” তার এই স্ট্যাটাসে কমেন্ট করেছেন অনেকেই । কয়েকটি কমেন্ট দেওয়া হলো-

চৌধুরী অমিত হাসান রকি কমেন্ট করেন – “দাদা “রাজেশ” রা এভাবেই হারিয়ে যাবে যায়ইও বটে। রাজেশ সরকারদের পদপদবী লাগেনা সাবেকও হয়না, তাদের সারা বাংলা চিনে। দাদা রাজপথ ও কর্মীরা আপনাকে ঠিকই মনে রাখবে”। পরাগ সেন কমেন্ট করেন – “ছাত্রলীগের ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লিখা ছিল, আছে এবং থাকবে এক নাম “রাজেশ সরকার” শুভ কামনা রইলো আপনার জন্য “আহমেদ মিজু কমেন্ট করেন – “পদ পদবী সাবেক হলেও আপনি আমাদের অত্যন্ত আস্তা শ্রদ্ধাভাজন রাজেশ সরকার দাদা। আপনি ছিলেন, আছেন, থাকবেন। যেখানে সবাই ভোগ করতে ব্যস্ত সেখানে একজন রাজেশ সরকার দাদা প্রমান করলেন (ভোগে নয়, ত্যাগেই প্রকৃত সুখ)সব সময় ভালোবাসা দাদা”।

সিলেট ছাত্রলীগের পরিচিত মুখ “রাজেশ সরকার”

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ