সিলেটে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী বরণ

আয়োজক সম্মিলিত নাট্য পরিষদ

মহান স্বাধীনতার চেতনা ও মূল্যবোধকে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী মাসকে স্মরণীয় করে রাখতে গান-কবিতা-নৃত্যের মধ্য দিয়ে বরণ করে নিলো সিলেটের সাংস্কৃতিক আন্দোলনের অন্যতম চালিকাশক্তি সম্মিলিত নাট্য পরিষদ, সিলেট।

সোমবার (১ মার্চ) সিলেট কেন্দ্রীয় শহিদমিনারে বিকেল ৫টায় সুবর্ণজয়ন্তী মাস বরণে সাংস্কৃতিক সমাবেশে বক্তারা বলেন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, মহান স্বাধীনতার স্থপতি জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমান যে সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে আজ বাংলাদেশ দৃঢ় প্রত্যয়ে বীরের মতো এগিয়ে যাচ্ছে।

তারা বলেন, চেতনা ও মননের মুক্ত বুদ্ধিতেই স্বাধীনতার সার্থকতা রয়েছে। নতুন প্রজন্মকে স্বাধীনতার সঠিক ইতিহাস ও অর্জনকে ধারণ করে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় এগিয়ে যেতে হবে। অনুষ্ঠানে নৃত্য পরিবেশন করেন নৃত্যশৈলী সিলেট, ছন্দ নৃত্যালয়, সিলেট, সমবেত আবৃত্তি পরিবেশন করেন শ্রুতি সিলেট। সিলেটের স্বনামধন্য শিল্পীদের নেতৃত্বে সমবেত সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়।

সংক্ষিপ্ত আলোচনা পর্বে সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সভাপতি মিশফাক আহমেদ চৌধুরী মিশুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্তের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাসুক উদ্দিন আহমদ, সিলেটের সহকারী ভারতীয় হাই কমিশনার নিরাজ কুমার জায়সওয়াল। এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন রাজনীতিবিদ এডভোকেট বেদানন্দ ভট্টাচার্য, সম্মিলিত নাট্য পরিষদের প্রাক্তন প্রধান পরিচালক রাজনীতিবিদ ব্যারিস্টার মো. আরশ আলী, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আল-আজাদ, সম্মিলিত নাট্য পরিষদের প্রধান পরিচালক অরিন্দম দত্ত চন্দন, প্রাক্তন সভাপতি নিরঞ্জন দে, সিলেট উইমেন্স চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র সভাপতি স্বর্ণলতা রায় প্রমুখ।

সমবেত সঙ্গীতে নেতৃত্ব দেন সঙ্গীতশিল্পী হিমাংশু বিশ্বাস, রানা কুমার সিন্হা, প্রতীক এন্দ টনি, অনিমেষ বিজয় চৌধুরী। নৃত্য পরিচালনা করেন নিলাঞ্জনা যুঁই, বিপুল শর্ম্মা ও আবৃত্তি পরিচালনা করেন সুকান্ত গুপ্ত। জাতীয় সঙ্গীত সমবেত কণ্ঠে পরিবেশনার মধ্য দিয়ে সুবর্ণজয়ন্তী মাস বরণে সাংস্কৃতিক সমাবেশ সম্পন্ন হয়

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ