‘করোনা ১৯১৮ সালের ফ্লু মহামারীর মতো বিপর্যয়কর হতে পারে’

যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউসি বলেছেন, বৈশ্বিক করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব ১৯১৮ সালের ফ্লু মহামারীর মতোই খারাপ অবস্থায় চলে যেতে পারে।

এক শতাব্দী আগের এই বিপর্যয়কে ‘সব মহামারীর জননী’ বলে আখ্যায়িত করা হয়। এতে বিশ্বজুড়ে পাঁচ কোটির বেশি লোকের মৃত্যু হয়েছিল।-খবর গার্ডিয়ানের

ট্রাম্প ও হোয়াইট হাউস কর্মকর্তাদের অব্যাহত সমালোচনার মুখে রয়েছেন ডা. ফাউসি। মঙ্গলবার ওয়াশিংটনের জর্জটাউন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলাপকালে করোনাভাইরাস ও এতে তরুণদের ঝুঁকি নিয়ে তিনি কথা বলেন।

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউটস অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজের এই পরিচালক বলেন, এখানে যুক্তরাষ্ট্রে আমরা একটি মারাত্মক পরিস্থিতিতে রয়েছি।

যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত ৩৪ লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, আর মৃত্যু হয়েছে এক লাখ ৩৬ হাজারের বেশি জনের।

ফ্লোরিডা, অ্যারিজোনা, টেক্সাসে রেকর্ডসংখ্যক মানুষ ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়েছেন। সম্প্রতি অর্থনৈতিক কার্যক্রম চালু করার পর তা আবার বন্ধ ঘোষণা করেছে ক্যালিফোর্নিয়া।

তরুণদের এই সংকটের অংশ হওয়া উচিত না বলেও জর্জটাউন বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের সতর্ক করেন ফাউসি।

তিনি বলেন, এখানে একটা পরিস্থিতি রয়েছে, যেখানে তরুণরা বলতে পারেন যে– ‘আপনারা জানেন, পরিসংখ্যানগতভাবে বয়স্কদের তুলনায় আমাদের আক্রান্ত হওয়ার শঙ্কা খুবই কম।’

‘তরুণদের অনেকে মনে করতে পারেন, ভিড়ের মধ্যে দাঁড়িয়ে আমরা মার্গারিটা পান করি। কিন্তু করোনা নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসার অর্থ হচ্ছে– আপনি নিজেকে এই ভাইরাসে সংক্রমিত হতে দিতে পারেন না, আপনি অন্যদের মধ্যে এই করোনা ছড়িয়ে দিতে পারেন।’

ফাউসি বলেন, আমি কিছুটা সচেতন হওয়ার কথা বলছি। তার মানে, আমি কাউকে দোষারোপ করছি না। আমার মনে হচ্ছে– লোকজন এসব না বুঝেই করছে। তারা সংকটের অংশ হতে চায় না। অসাবধানতাবশত তারা সমস্যার অংশ হয়ে পড়ে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ