শিবচরে বন্যায় ৩ হাজার হেক্টর জমির ফসল তলিয়ে গেছে

হঠাৎ করে পদ্মা নদীর পানি অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার চরাঞ্চলের চার ইউনিয়নে আকস্মিক বন্যায় ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

চলতি বর্ষা মৌসুমের শুরুতেই পানিতে তলিয়ে গেছে পুরো চরাঞ্চলের মানুষের ধান, পাট, বাদাম ও সবজি চাষের ফসলি জমি। এতে চরম বিপাকে পড়েছেন স্থানীয় কৃষকরা।

এদিকে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের তালিকা করে সরকারি সহায়তার আশ্বাস দিলেন শিবচর উপজেলা প্রশাসন ও মাদারীপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের শীর্ষ কর্মকর্তা।

এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা জানান, চলতি বর্ষা মৌসুমের শুরুতেই মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার পদ্মা নদীর চরাঞ্চল নিয়ে গঠিত বন্দরখোলা, মাদবরেরচর, চরজানাজাত ও কাঁঠালবাড়ী ইউনিয়নে আকস্মিক বন্যায় তলিয়ে গেছে।

এতে প্রায় তিন হাজার হেক্টর জমির আমন ও আউস ধান, পাট, বাদাম ও সবজি বিনষ্ট হয়েছে। অতিদ্রুত পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় দেরিতে চাষ করা বাদাম ঘরে তুলতে পারেননি চাষিরা।

এদিকে পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় অপরিপক্ব পাট কাটতে বাধ্য হচ্ছেন তারা। এতে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন চরাঞ্চলের মানুষ।

চিফ হুইপ নূর-ই আলম চৌধুরীর নির্দেশে গত বৃহস্পতিবার এলাকার কৃষকদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়। মাদারীপুর জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণ করেন।

এ ছাড়া গ্রামীণ রাস্তাঘাট ভেঙে গেছে আকস্মিক বর্ষায়। মাদবরচর শেখ জামাল সেতুর অ্যাপ্রোচ সড়কের দুটি স্থান ভেঙে রাস্তায় চলাচল অযোগ্য হয়ে পড়েছে।

মাদারীপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর উপপরিচালক মো. মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, দ্রুত ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের তালিকা করে সরকারি সহায়তার ব্যবস্থা করা হবে। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের পাশে আছে সরকার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরো সংবাদ