কুমিল্লা মেডিকেলের করোনা ইউনিটে একদিনে ৭ জনের মৃত্যু

কুমিল্লা মেডিকেলের করোনা ইউনিটে করোনা পজিটিভ ও উপসর্গ নিয়ে আরও ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালে করোনাভাইরাস আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে সাতজন মারা গেছেন। এরমধ্যে করোনা পজিটিভ নিয়ে একজন পুরুষ এবং করোনা উপসর্গ নিয়ে ছয়জনের মৃত্যু হয়।

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. সাজেদা খাতুন এসব তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে মারা যান তিনজন এবং করোনা ইউনিটের আইসিইউতে চারজন মারা গেছেন। তাদের মধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার মোরশেদ আলীর ছেলে শাহ আলম (৬০)।

এছাড়া উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন- চাঁদপুর জেলা শাহারাস্তি উপজেলার আরিফুর রহমানের স্ত্রী নাজমা রহমান (৫০), কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার গোপালনগর এলাকার মৃত লাল মিয়ার ছেলে আবদুল করিম (৭৫), কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার হাতিমারা এলাকার আবুল খালেকের ছেলে জামাল উদ্দিন (৫৩), গোপালগঞ্জ জেলার মোখশেদপুর উপজেলার বাশবাড়িয়া এলাকার মো. তারা মিয়ার স্ত্রী লুৎফর নেছা (৬২), কুমিল্লা সদর উপজেলার মনতাজ আলীর ছেলে আবদুল কাদের (৬০) ও চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ উপজেলার নবদী সরকারের ছেলে বাসু দেব (৭২)।

উল্লেখ্য, এ পর্যন্ত কুমিল্লা মেডিকেলের করোনা ইউনিটে পজিটিভ ও উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ১১০ জন। বর্তমানে করোনা পজিটিভ ও উপসর্গ নিয়ে ভর্তি আছেন ১১৬ জন। এদের মধ্যে করোনা পজিটিভ ৬২ জন ও করোনা উপসর্গ ৫৪ জন।

এ বিভাগের আরো সংবাদ