করোনায় মোট মৃত্যুর ৪৩ শতাংশই ষাটোর্ধ্ব

কোভিড-১৯ মহামারীতে দেশে যেসব মানুষ মারা যাচ্ছেন তাদের ৪৩ শতাংশই ষাটোর্ধ্ব।

এ তথ্য স্বাস্থ্য অধিদফতরের। শুক্রবার করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত ১ হাজার ৯৬৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ষাটোর্ধ্ব বয়সের মধ্যে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু; ৮৫৫ জন। অর্থাৎ মোট মৃত্যুর প্রায় ৪৩ দশমিক ৪ শতাংশ।

এরপর ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে মারা গেছেন ৫৭১ জন। ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ২৯০ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ১৪৭ জন ও ২১ থেকে থেকে ৩০ বছরের মধ্যে ৭০ জন ও ১১ থেকে ২৩ জন এবং শূন্য থেকে ১০ বছরের মধ্যে ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। অর্থাৎ সবচেয়ে কম মৃত্যু শূন্য থেকে ১০ বছর বয়সী শিশুদের ক্ষেত্রে।

অধ্যাপক নাসিমা বলেন, ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছন ৪২ জন। তাদের মধ্যে ৩২ জন পুরুষ ও ১০ জন নারী। এরমধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন ৩১ জন। বাসায় মারা গেছেন ১১ জন।

তাদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে তিনজন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে সাতজন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে পাঁচজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে একজন, ২১ থেকে থেকে ৩০ বছরের মধ্যে তিনজন ও ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন।

করোনাভাইরাস দেশে প্রথম শনাক্ত হয় ৮ মার্চ। আর প্রথম মৃত্যু হয় ১৮ মার্চ। এটিকে বৈশ্বিক মহামারী ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

এ বিভাগের আরো সংবাদ