‘শেন ওয়ার্নের বলে মুরালির মতো বৈচিত্র্য ছিল না’

শ্রীলংকান সাবেক অধিনায়ক মাহেলা জয়াবর্ধনে বলেছেন, শেন ওয়ার্ন আর মুত্তিয়া মুরালিধরন দু’জনই আলাদা ব্যক্তিত্ব। দু’জনেই কিংবদন্তি। শেন ওয়ার্ন ছিল স্টেডি লেগ স্পিনার। তবে শেন ওয়ার্নের সম্ভবত এটা জানা ছিল যে, মুরালির মতো বৈচিত্র্য ওর বলে নেই।

সম্প্রতি একটি ক্রিকেট ওয়েবসাইটে ভারতীয় ধারাভাষ্যকার সঞ্জয় মাঞ্জরেকারের সঙ্গে কথোপকথনে এমনটি বলেছেন মাহেলা জয়াবর্ধনে।
শ্রলংকান এ কিংবদন্তি ক্রিকেটার দেশের হয়ে ১৪৯টি টেস্ট, ৪৪৮টি ওয়ানডে আর ৫৫টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫৩টি সেঞ্চুরির সাহায্যে ২৫ হাজার ৯৫৭ রান সংগ্রহ করেছেন।

ক্রিকেট ইতিহাসের সেরা দুই বোলার মুরালিধরন ও শেন ওয়ার্ন। দু’জনেই ছিলেন স্পিনার। শ্রীলংকান কিংবদিন্ত মুরালি করতেন অফ স্পিন আর অস্ট্রেলিয়ান লিজেন্ড শেন ওয়ার্ন করতেন লেগ স্পিন।

ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে বেশি উইকেট শিকার করেছেন এ দুই বোলার। মুরালিধরন ১৩৩ টেস্টে শিকার করেছেন সর্বোচ্চ ৮০০ উইকেট। তার চেয়ে ১২টি টেস্ট ম্যাচ বেশি খেলে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭০৮ উইকেট শিকার করেছেন শেন ওয়ার্ন।

টেস্টের মতো ওয়ানডে ক্রিকেটেও উইকেট শিকারের দিক থেকে শীর্ষে মুত্তিয়া মুরালিধরন। তিনি ৩৫০টি একদিনের ম্যাচ খেলে শিকার করেন সর্বোচ্চ ৫৩৪ উইকেট। অন্যদিকে শেন ওয়ার্ন ১৯৪ ম্যাচে শিকার করেন ২৯৩ উইকেট।

ক্রিকেট ইতিহাসে সবমিলে ৪৯৫ ম্যাচে সর্বোচ্চ ১ হাজার ৩৪৭ উইকেট শিকার করে শীর্ষে রয়েছেন মুত্তিয়া মুরালিধরন। আর ৩৩৯ ম্যাচে সর্বোচ্চ ১০০১ উইকেট শিকার করে দ্বিতীয় পজিশনে রয়েছেন শেন ওয়ার্ন।

৯৫৬ উইকেট শিকার করেন এই তালিকায় তিন নম্বরে ভারতীয় তারকা স্পিনার অনিল কুম্বলে। আর ৯৪৯ উইকেট শিকার করে তার ঠিক পরেই আছেন অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি পেসার গ্লেন ম্যাকগ্রা। আর ৯১৬ উইকেট শিকার করেছেন পাকিস্তানের কিংবদন্তি পেসার ওয়াসিম আকরাম।

এ বিভাগের আরো সংবাদ