লাদাখ থেকে চীনের সেনা সরানোর প্রতিশ্রুতি শুধু কাগজে-কলমে!

লাদাখ থেকে সেনা সরানোর প্রতিশ্রুতি দিলেও চীন তা রক্ষা করছে না বলে অভিযোগ করেছে ভারত।

শুধু তাই নয়, লাদাখের ৯ কিলোমিটারের মধ্যে চীন ১৬টি শিবির স্থাপনের করেছে বলে দাবি ভারতীয় সেনার।

প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় সাম্প্রতিক উপগ্রহ চিত্রে কালো ত্রিপল ও লাল ফৌজের উপস্থিতি ঘিরে নতুন করে এই জল্পনা শুরু হয়েছে।

গত ১৫ জুন গলওয়ান উপত্যকায় ভারত ও সেনার মধ্যে চীনে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের পর ২২ জুন দুদেশের লেফটান্যান্ট পদমর্যাদার দ্বিপাক্ষিক
বৈঠক হয়।

ওই বৈঠকে উভয় দেশই সীমান্ত থেকে নিরাপদ দূরত্বে বাহিনী সরানোর পক্ষে সম্মতি দিয়েছিল।

এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর কালো ত্রিপলের ছবি সম্প্রতি ধরা পড়েছে উপগ্রহ চিত্রে। ২৫ ও ২৬ জুন প্রকাশিত উপগ্রহ চিত্রে এখনও বিতর্কিত এলাকায় চীন সেনার উপস্থিতি লক্ষ করা গেছে।

শুধু তাই নয় এলএসি বরাবর ব্যাপক সামরিক সম্ভার বাড়াচ্ছে বেইজিং। এছাড়া ৯ কিলোমিটারের মধ্যে প্রায় ১৬টি শিবির চিহ্নিত করেছে সেই চিত্র।

সামরিক স্তরের আলোচনায় চীন বাহিনী সরানোর প্রতিশ্রুতি দিলেও, সেটা শুধু কাগজে-কলমে।

তবে পূর্ব লাদাখের গলওয়ান উপত্যকায় যদি এখনও চীন কোনো অশান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করে তবে তার যোগ্য জবাব দেয়া হবে বলে হুশিয়ার দিয়েছে ভারত।

ভারতের দাবি, পূর্ব লাদাখে চীনা সেনা জোরদার বন্ধ করুক বেইজিং। চীনে দায়িত্বরত ভারতের রাষ্ট্রদূত বিক্রম মিশ্রি সংবাদসংস্থা পিটিআইকে বলেছেন, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় যে সমস্যা তৈরি হয়েছে তা আবার স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনার একমাত্র রাস্তা হলো চীনের নতুন নির্মাণ বন্ধ করা।

এ বিভাগের আরো সংবাদ