বিয়ের দেড় মাস পরেই মিলল নববধূর ঝুলান্ত লাশ, পরিবারের দাবি হত্যা

বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলায় বিয়ের দেড় মাস পরই এক নববধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করছে পুলিশ। নিহতের নাম রাস মনী সুপ্তধর (২০)।

শুক্রবার রাতে উপজেলার কবাই ইউনিয়নের শিয়ালঘূনি গ্রাম থেকে ওই নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত রাস মনী সুপ্তধর কলসকাঠী লঞ্চঘাটসংলগ্ন এলাকার চৈতন্য কৌরারের মেয়ে এবং উপজেলার কাবাই ইউনিয়নের শিয়ালঘূনি গ্রামের স্বপন হালদারের স্ত্রী।

নিহতের পারিবার সূত্রে জানা যায়, মাত্র দেড় মাস আগে পালিয়ে গিয়ে স্বপন হালদারকে বিয়ে করে রাস মনী সুপ্তধর। বিয়ের বিষয়টি স্বপন হালদারের পরিবার মেনে না নেয়ায় শুরু হয় পারিবারিক কলহ।

রাস মনী সুপ্তধরের বাবা চৈতন্য কৌরার জানান, স্বপন হালদার ও তার পরিবার আমার মেয়েকে হত্যা করে মরদেহ ঝুলিয়ে রেখে আত্মহত্যা করেছে বলে চালিয়ে দিতে চায়।

তিনি দাবি করেন, তার মেয়ে আত্মহত্যা করেনি; তাকে হত্যা করা হয়েছে, তিনি এ হত্যার বিচার দাবি করেন।

বাকেরগঞ্জ থানার এসআই তরুন কুমার যুগান্তরকে জানান, মরাদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

প্রতিবেদন পেলে বলা যাবে হত্যা; না আত্মহত্যা। তবে প্রাথমিক ধারণা করা হচ্ছে, ওই নারী আত্মহত্যা করে থাকতে পারে। তবে আত্মহত্যার সঙ্গে পারিবারিক কলহেরও সম্পর্ক থাকতে পারে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ