করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত বন্ধ থাকবে সিলেটের সব হোটেল

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া নভেল করোনা ভাইরাসের নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে সিলেটের পর্যটন শিল্পে। পর্যটনের এ ভরা মৌসুমে হোটেল মোটেলগুলোতে বিদেশি পর্যটক তো নেই-ই, শূন্য দেশীয় পর্যটকও।

করোনাভাইরাস দ্রুত ছড়ানোর কারণে পর্যটনের ভরা মৌসুমেও ফাঁকা প্রকৃতি কন্যা সিলেট। বিদেশি পর্যটক নেই, নেই দেশি পর্যটকও। যে কারণে ফাঁকা পড়ে আছে হোটেল-মোটেলগুলোও। ফলে আর্থিক বিপর্যয়ের মুখে পর্যটন ব্যবসার সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা।

বর্তমান দুর্যোগময় পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য গত মঙ্গলবার (২৩ জুন) বিকেলে সিলেট হোটেল এন্ড গেস্ট হাউস ওনার্স গ্রুপের উদ্যোগে সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির বোর্ডরুমে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন  করা হয়।

এতে সিলেট হোটেল অ্যান্ড গেস্ট হাউস ওনার্স গ্রুপের সভাপতি সুমাত নূরী চৌধুরী তার বক্তব্যে বলেন, করোনাভাইরাসের প্রভাবে পর্যটন ব্যবসার সঙ্গে সম্পৃক্তদের চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হয়েছে। ব্যবসা একেবারেই খারাপ। অন্য বছর এই সময়ে সবকটি হোটেলে সাধারণত ৮০ ভাগ বোর্ডার থাকতেন। তবে এবার তা শূন্য ভাগে নেমে এসেছে। এ পরিস্থিতির উন্নতি না হলে ব্যবসায়ীরা বড় ধরনের ক্ষতির সম্মুখীন হবে।

তিনি আরও বলেন, সরকার থেকে পরবর্তী কোন নির্দেশনা না আশা পর্যন্ত এবং বর্তমান করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত সিলেটের সকল হোটেল ও গেস্ট হাউস বন্ধ থাকবে।

এ মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন সিলেট হোটেল এন্ড গেস্ট হাউস ওনার্স গ্রুপের সেক্রেটারি নওসাদ আল মোক্তাদির, সদস্য আবু তাহের মো. শোয়েব, তাহমিন আহমদ, শেখ আব্দুল হারুন, জুনেদ আহমেদ সওকত, মো. মাহমুদ আলম, মো. গোলাম কিবরিয়া, সুমাত নূরী জুয়েল প্রমুখ।

এ বিভাগের আরো সংবাদ