১৬ দিনেও মিলেনি রিপোর্ট, উপসর্গ নিয়ে ফিলিপাইনের নাগরিকের মৃত্যু

চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে সংক্রমণের লক্ষণ নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ফিলিপাইনের এক নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে। চট্টগ্রামে এই প্রথম করোনার উপসর্গে কেনো বিদেশি নাগরিকের মৃত্যু হলো।

শুক্রবার (১৯ জুন) রাত সাড়ে ৯ টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

চমেক হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. আফতাবুল ইসলাম বলেন, ফিলিপাইনের একজন নাগরিক গত ১৬ দিন ধরে আমাদের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। করোনার পরীক্ষার জন্য উনার নমুনা নেওয়া হয়েছিল। নমুনা ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। তবে রেজাল্ট এখনও আসেনি।

মৃত রুয়েল ই কাতান (৫০) চট্টগ্রাম বন্দরে জাহাজ থেকে কনটেইনার ওঠানামায় নিয়োজিত বেসরকারি অপারেটর সাইফ পাওয়ার টেকের শিপ প্ল্যানার পদে কর্মরত ছিলেন। তিনি নগরীর হালিশহরে থাকতেন।

সাইফ পাওয়ার টেকের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক রেজাউল করিম জানান, জ্বর-শ্বাসকষ্টসহ করোনার লক্ষণ থাকায় গত ৩ জুন সংক্রমণ পরীক্ষার জন্য কাতানের নমুনা পরীক্ষার জন্য দেওয়া হয়। পরদিন তাকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ফিলিপাইনের কনস্যুলেট জেনারেল অফিসের চীফ অব স্টাফ শেখ হাবিবুর রহমান বলেন, গত ১৬ দিন ধরে বিভিন্নভাবে চেষ্টা করেও আমরা নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টটা আনতে পারিনি। দুঃখজনকভাবে তিনি পৃথিবী থেকেই বিদায় নিলেন।

এ বিভাগের আরো সংবাদ