লকডাউন তুলে নেয়ার ২৫ দিন পর নিউজিল্যান্ডে ২ জনের দেহে করোনা শনাক্ত

লকডাউন তুলে নিয়ে স্বাভাবিক জীবনযাপনে ফিরেছে নিউজিল্যান্ড। তবে ২৫ দিন পর দেশটিতে দুজনের দেহে কোভিড-১৯ ভাইরাস ধরা পড়েছে। তারা দুজনই বিদেশফেরত। তারা যুক্তরাজ্য থেকে নিউজিল্যান্ড গেছে।

মঙ্গলবার নিউজিল্যান্ডের স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তারা জানান, টানা ২৫ দিন নিউজিল্যান্ডে নতুন কোনো আক্রান্ত শনাক্ত হয়নি। তবে বিদেশফেরত আরও অনেকে এ ভাইরাসে আক্রান্ত থাকতে পারে।

তাদের অবশ্যই দুই সপ্তাহের জন্য সরকার পরিচালিত কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। সেই সময়ে তারা করোনামুক্ত কিনা তা দুবার পরীক্ষা করে দেখা হবে।

সবশেষ ৮ জুন অকল্যান্ডের কোভিড-১৯ আক্রান্ত এক নারী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরেন। তিনিই ছিলেন দেশটির সর্বশেষ করোনা আক্রান্ত রোগী।

এর আগে ৭ জুন সীমান্ত নিয়ন্ত্রণ ব্যতীত নিউজিল্যান্ডের অভ্যন্তরীণ সব নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার ঘোষণা দেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন।

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে গত ২৫ মার্চ থেকে ৪ সপ্তাহের জন্য লকডাউন করা হয় নিউজিল্যান্ড।

নিউজিল্যান্ডে এখন পর্যন্ত ১ হাজার ৫০৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ২২ জন।

আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৪৮২ জন।

নিউজল্যান্ডে ২ লাখ ৯৪ হাজার ৮৪৮ জন মানুষকে করোনা টেস্ট করা হয়েছে।

দেশটিতে ১ মিলিয়ন মানুষের বিপরীতে ৫৮ হাজার ৯৪৫ জনকে টেস্টের আওতায় আনা হয়।

নিউজিল্যান্ডই একমাত্র দেশ যেটি দ্রুত করোনা পরিস্থিতির উত্তরণ ঘটিয়েছে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ