যে কারণে টাইগারদের স্পিন কোচ হতে আগ্রহী হন ভেট্টোরি

খ্যাতিমান কোচে পরিণত হয়েছেন নিউজিল্যান্ডের কিংবদন্তি অলরাউন্ডার ড্যানিয়েল ভেট্টোরি।

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু বা ব্রিসবেন হিটের মতো বড় ফ্র্যাঞ্চাইজি দলের হেড কোচ হিসেবেই কাজ করেছেন তিনি।

এরই মধ্যে বছরে ১০০ দিনের চুক্তিতে বাংলাদেশ দলের স্পিন কোচের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।

দুটো দলের হেড কোচ হওয়ার পরও কেন এই সাবেক কিউই স্পিনার টাইগারদের কেবল স্পিন কোচ হয়েছেন?

এবার বাংলাদেশের ক্রিকেটভক্তদের সে কথাই জানালেন ভেট্টোরি।

তিনি জানান, মূলত স্পিনারদের সঙ্গে আলাদাভাবে কাজ করার সুযোগ হবে ভেবেই বাংলাদেশে আসতে আগ্রহ জন্মায় তার।

তা ছাড়া বাংলাদেশের স্পিনাররা বেশ ভালো মানের বলেই কাজ করতে আগ্রহী হন বলে জানান ভেট্টোরি।

সম্প্রতি ‘ক্রিকবাজ’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ভেট্টোরি বলেন, ‘আমি এই চাকরিটা মূলত নিয়েছি, কারণ আমি চাইছিলাম আলাদাভাবে স্পিনারদের সঙ্গে কাজ করতে। হেড কোচের দায়িত্বে থাকলে দলের স্পিনারদের নিয়ে আলাদাভাবে কাজ করা হয়ে ওঠে না। আমার প্রায়ই মনে হতো, স্পিনারদের হয়তো অবহেলা করছি। তাই আমি একটি দলের স্পিনারদের বেশি সময় দিতে পরিকল্পনা করছিলাম।

ভেট্টোরি বলেন, এ জন্য আমি বাংলাদেশ দলের স্পিনারদের বেছে নিয়েছি। আমার মতে, বাংলাদেশ দলের স্পিনাররা খুব ভালো মানের। এখানে বেশ কয়েকজন ভালো ছাত্র পাব আমি। সে জন্য দলটির সঙ্গে কাজ করতে আগ্রহী হই।

স্পিনারদের মধ্যে তাইজুল ইসলামের খুব প্রশংসা করেন ভেট্টোরি।

তিনি বলেন, তাইজুল সামনের দিনগুলোতে বিদেশের মাটিতেও ভালো করতে পারবেন। তরুণ নাঈম হাসান, আমিনুল ইসলাম বিপ্লবরাও একদিন ব্যাটসম্যানদের কাঁপুনি ধরিয়ে দেবে।

ভেট্টোরি যোগ করেন, বাংলাদেশের ক্রিকেটে দারুণ কয়েকজন স্কিলফুল স্পিনার দেখেছিলাম। দলে বাঁহাতি স্পিনারের বিশাল একটা ঐতিহ্য আছে। তাদের নিয়ে আমার অনেক বড় আশা। আমি মনে করি টাইগার স্পিনাররা খুবই প্রতিভাবান। করোনা শেষে ক্রিকেট মাঠে ফিরলে তারা চমক দেখাবে নিশ্চিত।

শুধু তিনিই নন, টাইগার হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো বাংলাদেশের স্পিনারদের নিয়ে খুবই রোমাঞ্চিত বলে জানান ভেট্টোরি।

এ বিভাগের আরো সংবাদ