‘হাতির সঙ্গে এমন বিশ্বাসঘাতকতা কেবল রাক্ষসরাই করতে পারে’

কেরালায় অন্তঃসত্ত্বা হাতি হত্যার ঘটনার প্রতিবাদে মুখর গোটা ভারত। বলিউড থেকে ক্রিকেটাঙ্গন, সাধারণ মানুষ নির্মম এ ঘটনার তীব্র নিন্দা করছেন। ক্রীড়াবিদদের মধ্যে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা, সুরেশ রায়না, হরভজন সিং, লোকেশ রাহুলরা কঠোর শাস্তি দাবি জানিয়েছেন। এবার হাতি খুনের প্রতিবাদে সরব হলেন দেশটির ফুটবল অধিনায়ক সুনীল ছেত্রী।

গেল ২৭ মে কেরালার মালাপ্পুরমে ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ক্ষুধার্ত হাতির মুখে শক্তিশালী পটকা (বারুদ) ভর্তি আনারস তুলে দিয়ে হত্যা করে স্থানীয়রা। ভারতীয় আঞ্চলিক বন অধিদফতর সূত্র জানায়, খাবারের খোঁজে এক জঙ্গল থেকে ওই গ্রামে ঢুকে হাতিটি। কিন্তু কারো কোনো ক্ষয়ক্ষতি করেনি সেটি।

ভারতে পশু-পাখির হাত থেকে ফসল বাঁচাতে পটকা ভর্তি ফলের টোপ দেয়ার ঘটনা বিভিন্ন জায়গায় দেখা যায়। কিন্তু এ ক্ষেত্রে হাতিটি অন্তঃসত্ত্বা হওয়ায় ক্ষুধার জ্বালায় মানুষকে বিশ্বাস করে ফলটি খেয়ে আহত হয়। এতে তার মুখ ও জিভ ছিন্নবিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। পরে পেটের ভেতরের বাচ্চাকে বাঁচাতে নিকটবর্তী পুকুরে (নদী) নেমে আশ্রয় নেয় ওই হাতি। সেখানে টানা তিনদিন দাঁড়িয়ে অবশেষে মারা যায় সেটি।

ন্যক্কারজনক এ হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে সোচ্চার ভারতীয় মেসি খ্যাত ফুটবলার সুনীল ছেত্রী। সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে তিনি বলেন, নিরীহ জন্তুর সঙ্গে এমন আচরণ মানুষ কীভাবে করতে পারে, ঠিক ভেবে উঠতে পারছি না।

এখানেই থেমে থাকেননি ছেত্রী। প্রকৃতির সঙ্গে মানুষ যেমন আচরণ করছে, পরিণামে এর চরম মূল্য দিতে হবে বলে হুঁশিয়ার করেন তিনি। দেড়শ’ কোটি মানুষের এবং পৃথিবীর বৃহত্তম গণতন্ত্রের দেশটির ফুটবলের পোস্টারবয় বলেন, যারা অন্তঃসত্ত্বা হাতির সঙ্গে এমন বিশ্বাসঘাতকতা করেছে, তারা রাক্ষস। ওরা নিজেদের কীভাবে মানুষ বলে পরিচয় দেয়, সেটাই জানতে চাই আমি।

এরই মধ্যে কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। যদিও এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার দেখানো হয়নি।

তথ্যসূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া

এ বিভাগের আরো সংবাদ