কোমা থেকে ফিরে ফরাসি বলতে শুরু করেন ইংলিশ ফুটবলার!

২০১২ সালে এক ভয়াবহ দুর্ঘটনায় কোমায় চলে গিয়েছিলেন ২২ বছর বয়সী ইংলিশ ফুটবলার ররি কার্টিস। স্বাভাবিকভাবেই তার সহজাত ভাষা ছিল ইংরেজি। কিন্তু কোমা থেকে ফিরে স্পষ্টভাবে ফরাসি ভাষায় কথা বলেন তিনি। অর্থাৎ ১২ বছরের সব স্মৃতি ভুলে যান এ খেলোয়াড়।

মোট ছয় দিন কোমায় ছিলেন কার্টিস। এর পর সেখান থেকে বেরিয়ে আসেন তিনি। ইংলিশ এ ফুটবলার বলেন, আমি শুনলাম– আমার বাবা এ গবেষণাটা করছেন। আমাদের পরিবারের উৎপত্তি নরম্যান্ডি থেকে। তবে এটি ছিল ১৮০০-এর দশক। আমার নাম টাইপ করে ইউটিউবে সার্চ করলে অনেক ষড়যন্ত্র তত্ত্ব খুঁজে পাবেন। যতসব পাগলামো।

কার্টিস বলেন, স্কুলে পড়ার সময় ফরাসি ভাষা শিখেছিলাম। ১০ বছর পর্যন্ত সেটি মাথায় ছিল। কিন্তু বড় হতে হতে তা ভুলে গিয়েছিলাম। ক্রমেই ইংরেজি আয়ত্ত করেছিলাম। সেটিই ব্যবহার করতাম। তবে কোমা থেকে ফিরে কিছুক্ষণ ফ্রেঞ্চ ভাষায় কথা বলি আমি। অবশ্য এর পরই তা মস্তিষ্ক থেকে ফের হারিয়ে যায়।

২০১২ সালের আগস্টে গাড়ি দুর্ঘটনার কবলে পড়েন কার্টিস। আগুন লেগে যায় তার গাড়িতে। ৪০ মিনিট আপ্রাণ চেষ্টার পর তাকে গাড়ির ভেতর থেকে টেনে বের করতে সক্ষম হন দমকল কর্মীরা। তাতে গুরুতর চোট পেয়ে কোমায় চলে যান তিনি।

পরে বিশেষ বিমানে করে দুর্ঘটনাস্থল থেকে কার্টিসকে বার্মিংহ্যামের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। ছয় দিন পুরোপুরি অচেতন ছিলেন তিনি। তার পরিবার জানিয়েছে, আবার ভালোমতো কথা বলবে কিংবা চলাফেরা করবেন উনি, সেটি কস্মিনকালেও কেউ ভাবেননি।

কোমা থেকে ফিরে নিজেকে ১০ বছরের বালক ভাবতে শুরু করেন কার্টিস। মায়ের কাছে নিজেদের কুকুরটি সম্পর্কেও জানতে চান তিনি। প্রতি উত্তরে জানতে পারেন, সেটি মারা গেছে।

এর পর নিজেকে ১২ বছরের বালক ভাবতে শুরু করেন কার্টিস। তার মস্তিষ্কের ভেতর সব কিছু তালগোল পাকিয়ে যায়। সেটি খুব ভালো করে বুঝতে পারেন তিনি। অবশেষে তা মেনেও নেন।

কার্টিস এখন খেলছেন ওয়ালসাল একাডেমির হয়ে। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে তাকে ফেরানোর কথা ছিল। অল্প বয়সে স্ট্রাইকার হিসেবে নজর কাড়েন তিনি। কিন্তু ইনজুরির কারণে তার ক্যারিয়ার দ্রুত শেষ হয়ে যায়। এখন নিজের সেলুন চালাচ্ছেন।

তথ্যসূত্র: বিবিসি/দ্য সান/এনডিটিভি

এ বিভাগের আরো সংবাদ