সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিমকে প্লাজমা থেরাপি দেওয়া হয়েছে

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম এমপির শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে। তার অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। রাজধানীর শ্যামলীর বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন সাবেক এই স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে প্লাজমা থেরাপি দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২ জুন) হাসপাতালটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আল ইমরান চৌধুরী এমন তথ্য জানিয়ে বলেছেন, মোহাম্মদ নাসিম করোনা পজিটিভ হয়ে আইসিইউতে রয়েছেন ঠিকই। কিন্তু তিনি ভালো আছেন, আগের চেয়েও স্থিতিশীল রয়েছেন। তিনি হাই ফ্লো অক্সিজেন পাচ্ছেন।

তিনি আরও জানান, সাবেক এই স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) নিতে চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু তিনি নিজেই এই হাসপাতালে থাকতে চেয়েছেন।

এর আগে সোমবার দুপুরে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে মোহাম্মদ নাসিমকে বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ভর্তির পরই তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। রাতে পরীক্ষার রিপোর্টে তার দেহে করোনার উপস্থিতি শনাক্ত হলে আইসিইউতে নেওয়া হয়। গভীর রাতে প্লাজমা থেরাপিও দেওয়া হয় তাকে। মেডিসিন বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. মহিউদ্দিন আহমেদের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা নিচ্ছেন তিনি।

প্রবীণ এই আওয়ামী লীগ নেতার ছেলে ও সাবেক এমপি তানভীর শাকিল জয় জানিয়েছেন, তার বাবার শারীরিক অবস্থা আগের চেয়ে ভালো। পরিবারের পক্ষ থেকে তার বাবার জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন তিনি।

করোনা সংকট শুরুর পর থেকেই কর্মহীন মানুষের মধ্যে ত্রাণ কার্যক্রম চালিয়ে আসছিলেন মোহাম্মদ নাসিম। ১৪ দলের পক্ষ থেকে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় কর্মহীন মানুষকে সহায়তা দিয়েছেন তিনি। সিরাজগঞ্জের নিজ নির্বাচনী এলাকায়ও ত্রাণ কার্যক্রম চালিয়েছেন আওয়ামী লীগ থেকে নির্বাচিত প্রবীণ এই সংসদ সদস্য। চিকিৎসক-নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রীও বিতরণ করেন তিনি। দিন পাঁচেক আগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) প্রথম দফা করোনা পরীক্ষা করা হয়েছিল। যদিও সে সময় পরীক্ষার রিপোর্টে করোনা নেগেটিভ আসে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ