করোনা উপসর্গ: হাসপাতালে ঠাঁই না পেয়ে মৃত্যু

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় করোনার উপসর্গ নিয়ে আতাউর রহমান সেলিম (৫৫) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে।

বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করানোর চেষ্টা করা হলেও করোনা আতঙ্কে হাসপাতালগুলোতে ঠাঁই দেয়া হয়নি তাকে। পরে বিনা চিকিৎসায় আতাউর রহমান সেলিমের মৃত্যু হয় বলে পরিবারের অভিযোগ।

শনিবার শ্বাসকষ্ট নিয়ে ঢাকা শিন-শিন জাপান হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। পরে করোনার নিয়মানুযায়ী রাত সাড়ে ১১টার দিকে আখাউড়ায় তার মরদেহ দাফন করা হয়।

আতাউর রহমান সেলিম আখাউড়া পৌরসভার নারায়ণপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মোখলেছুর রহমানের ছেলে।

জানা গেছে, আতাউর রহমান সেলিম চট্টগ্রাম বন্দরে চাকরি করতেন। সম্প্রতি তার জ্বর ও শ্বাসকষ্ট হয়। পরে তাকে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে করোনা রোগী ভয়ে ভর্তি নেয়নি।

পরে তাকে ঢাকার শিন-শিন জাপান হাসপাতালে নিয়ে গেলে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে চিকিৎসা দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পরে বিনা চিকিৎসায় আতাউর রহমান সেলিমের মৃত্যু হয় বলে তার পরিবার অভিযোগ করে।

আখাউড়া পৌরসভার স্থানীয় কাউন্সিলর মো. মন্তাজ মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, ঢাকা থেকে তার বাড়িতে মরদেহ আনার পর খবর পেয়ে রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিনা আক্তার রেইনা ওই বাড়িতে যান।

এ সময় মৃত ব্যক্তিসহ যারা তার সংস্পর্শে ছিলেন, তাদের সবার নমুনা সংগ্রহ করে স্বাস্থ্য বিভাগ।

পরে নিয়ম মেনে ওই ব্যক্তির দাফন সম্পন্ন হয়। মৃত ব্যক্তির বাড়িসহ আশপাশের দুটি বাড়ি লকডাউন করে উপজেলা প্রশাসন।

এ বিভাগের আরো সংবাদ