ফিলিপাইনে আঘাত হানছে শক্তিশালী টাইফুন

করোনা ভাইরাস মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের মধ্যেই ফিলিপাইনে শুক্রবার প্রচণ্ড শক্তিশালী টাইফুন আঘাত হানতে যাচ্ছে। ইতোমধ্যেই ১ লাখ ৪০ হাজার লোক আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

টাইফুন ভংফং উপকূলের দিকে এগিয়ে আসতে থাকায় বৃহস্পতিবার থেকেই ভারি বৃষ্টিপাত হচ্ছে, উপকূলীয় হাজার হাজার মানুষ ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে।

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে ঘরে থাকা লাখ লাখ ফিলিপিনো এই তাণ্ডবের মধ্যে বিপন্ন অবস্থায় রয়েছে। তবে, ১ লাখ ৪১ হাজার ৭০০ লোক এলাকা ছেড়ে আশ্রয়কেন্দ্রে ঠাঁই নিয়েছে।

স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তা কালিটো এভরিজ এএফপিকে বলেন, ‘আমরা মাস্ক পড়ি এবং সব সময় সামাজিক দূরত্ব মেনে চলি।’ তবে, সরিয়ে আনা লোকদের মধ্যে এটি বজায় রাখা কঠিন। তবুও আমরা আমাদের সর্বোত্তম প্রচেষ্টা চালাচ্ছি।

কর্তৃপক্ষ বলেছে, আশ্রয়কেন্দ্রগুলোর ধারণ ক্ষমতার অর্ধেক করে লোক তারা কেন্দ্রগুলোতে রাখার চেষ্টা করবে, যাতে জনঘনত্ব কমে, যাদের মাস্ক নাই, তাদের সকলকে মাস্ক দেয়া হবে এবং পরিবারগুলোকে আলাদা আলাদা রাখা হবে। অনেক আশ্রয়কেন্দ্র ইতোমধ্যে করোনার কোয়ারেন্টিন সেন্টারে পরিণত করা হয়েছে।

ফিলিপাইনের মধ্যাঞ্চল দিয়ে প্রথম ঝড়টি আঘাত হানছে, এই অঞ্চল দেশটির অন্যতম করোনা আক্রান্ত এলাকা, এখানে ১১ হাজার ৮০০ লোক করোনা আক্রান্ত এবং ৭৯০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

একাধিক বিপর্যয়ে ঢেকে ফেলা ফিলিপাইনে টাইফুনের আঘাতের আগে দেশটির সক্রিয় মেয়ন আগ্নেয়গিরি এলাকা থেকে ২২ হাজার লোক সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

ফিলিপাইন দ্বীপমালা প্রতিবছর টাইফুনের আঘাতে বিপর্যস্ত হয়ে থাকে, বছরে গড়ে অন্তত ২০টি টাইফুনের মুখোমুখি হতে হয় দেশটিকে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ