যুক্তরাষ্ট্রকে প্রথম করোনার ভ্যাকসিন সরবরাহে নারাজ ফ্রান্স

যুক্তরাষ্ট্রকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রথমে করোনার ভ্যাকসিনের প্রবেশাধিকার দেয়া অগ্রহণযোগ্য বলে মন্তব্য করেছেন ফ্রান্সের ডেপুটি অর্থমন্ত্রী অ্যাগনেস পানিয়ার রুনাশার। বৃহস্পতিবার সান রেডিওকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেন। খবর-আনাদলু

এর একদিন আগে ফ্রান্সের বৃহৎ ফার্মাসিউটিক্যালস কোম্পানি সানোফির প্রধান বলেছিলেন, অন্য দেশগুলোর আগে যুক্তরাষ্ট্রকে যে কোনো সফল কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন দিতে পারে সানোফি। ওষুধ প্রস্তুতকারী কোম্পানিটির প্রধানের এমন বক্তব্যের পরের দিনই এমন কড়া জবাব আসল দেশটির ডেপুটি অর্থমন্ত্রীর পক্ষ থেকে।

যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদ মাধ্যম ব্লুমবার্গকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে সানোফির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পল হাডসন বলেন, যুক্তরাষ্ট্র সবার আগে বড় ধরনের পূর্বাদেশ (প্রি-অর্ডার) দেয়ার অধিকার রাখে, কারণ ঝুঁকি নিয়ে তারা বিনিয়োগ করেছিল।

যুক্তরাষ্ট্রের সরকার চলতি বছর সানোফির সঙ্গে অংশীদারিত্ব সম্প্রসারিত করেছে। কোম্পানিটির এক বছর দায়িত্বে থাকা হাডসন বলেন, যে কোনো সফল ভ্যাকসিনের প্রথম প্রবেশাধিকারের প্রত্যাশা করে ওয়াশিংটন।

দেশের স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিরা হাডসনের বক্তব্যে ব্যাপক সমালোচনা করার পরে ফরাসী মন্ত্রী জনসাধারণের জন্য কিছু করতে সানোফির সহযোগিতা চান।

রেডিও সানকে দেয়া এক সাক্ষাৎকার পানিয়ার রুনাশার বলেন, আমাদের জন্য, আর্থিক কারণে এই জাতীয় দেশে সুযোগ সুবিধা পাওয়ার জন্য এটি গ্রহণযোগ্য হবে না।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্রিটিশ সংস্থা গ্ল্যাক্সো স্মিথক্লাইন সানোফির সঙ্গে ভাইরাসটির একটি সম্ভাব্য ভ্যাকসিন তৈরিতে অংশীদার হয়েছে।

এ দুটি কোম্পানির অংশীদারিত্বের জন্য মার্কিন স্বাস্থ্য ও মানব সেবা বিভাগের একটি শাখা বায়োমেডিক্যাল অ্যাডভান্স বিসার্চ অর্থায়ন করে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ