একটা ভাইরাস গোটা বিশ্বকে তছনছ করে দিয়েছে: মোদি

কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে সৃষ্ট আর্থিক ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে ২০ লাখ কোটি রুপির আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

মঙ্গলবার রাতে জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে তিনি এই প্রণোদনা ঘোষণা করেন। এ সময় তিনি করোনাভাইরাসের ভয়াবহতা নিয়ে বলেন, একটা ভাইরাস গোটা বিশ্বকে তছনছ করে দিয়েছে। খবর এনডিটিভির।

আত্মনির্ভরশীল ভারত গড়ার ডাক দিয়ে মোদি জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে বলেন, এই আর্থিক প্রণোদনা আত্মনির্ভর ভারতকে আরও এগিয়ে নেবে। পুরো প্যাকেজটি ২০ লাখ কোটি রুপির মতো হবে যা দেশের জিডিপির প্রায় ১০ শতাংশ।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে দেশটিতে চলা লকডাউনের ৪৯ দিনের মাথায় এই প্রণোদনা ঘোষণা দিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। প্রায় ৩৫ মিনিটের দীর্ঘ বক্তৃতায় ২০ লাখ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেন তিনি।

এর আগে ১ লাখ ৭৬ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছিল। এই বিপুল পরিমাণ আর্থিক প্রণোদনা ঘোষণায় অর্থনীতি কিছুটা চাঙ্গা হবে বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই প্যাকেজে জমি-শ্রমিক সবকিছুর ওপরই নজর দেয়া হয়েছে। মধ্যবিত্তের জন্য এই প্যাকেজ। অর্থমন্ত্রী এই প্যাকেজের বিষয়ে বিস্তারিত জানাবেন।

তিনি বলেন, করোনায় বিশ্বে ৪২ লাখ মানুষ আক্রান্ত, পৌনে তিন লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। ভারতেও বহু মানুষ তাদের আত্মীয়কে হারিয়েছেন। তাদের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি।

মোদি বলেন, একটা ভাইরাস দুনিয়াতে ত্রাস হয়ে উঠেছে। গোটা বিশ্ব প্রাণ বাঁচাতে যুদ্ধ করছে। এমন সংকট না দেখেছি, না শুনেছি। নিশ্চিতভাবেই মানুষের জন্যে এই পরিস্থিতি অভূতপূর্ব। তবে ভেঙে পড়লে চলবে না। আমরা আগে থেকেই শুনছি- এই শতাব্দী আমাদের দেশ ভারতের। এই শতাব্দী আমাদের হবে, এটা স্বপ্ন নয়, আমাদের দায়িত্বও হবে। বিশ্বের আজকের পরিস্থিতি আমাদের বোঝাচ্ছে, আত্মনির্ভর ভারত হতে হবে।

এই আত্মনির্ভরতা ৫টি স্তম্ভের ওপর দাঁড়িয়ে। প্রথম স্তম্ভ: অর্থনীতি, দ্বিতীয় স্তম্ভ: পরিকাঠামো, তৃতীয় স্তম্ভ: সিস্টেম, চতুর্থ স্তম্ভ: ডেমোগ্রাফি আর পঞ্চম স্তম্ভ: চাহিদা। তিনি যোগ করেন, আমাদের দেশের যে বিপুল চাহিদা, তা স্থির রাখতে আমাদের সাপ্লাই চেইনকে আরও শক্তিশালী করতে হবে।

তিনি দাবি করেন, এই প্রণোদনা কৃষি, ক্ষুদ্র ও মাঝারি বিনিয়োগকারী, মধ্যবিত্ত, শ্রমিক সব শ্রেণীর জন্য। তিনি বলেন, আমাদের মনে রাখতে হবে আত্মনির্ভরতা মানে আত্মকেন্দ্রিকতা নয়। এতদিন আমাদের গরিব, দুঃস্থ শ্রমিক, মৎস্যজীবী, কৃষকবন্ধুরা, যারা এই সঙ্কটে কষ্ট করেছেন, তাঁদের কষ্ট লাঘব করতে এই প্যাকেজ।

আজ বুধবার অর্থমন্ত্রী এ বিষয়ে বিস্তারিত ঘোষণা জাতির সামনে করবেন।

প্রধানমন্ত্রীর এই আর্থিক প্যাকেজকে স্বাগত জানিয়েছে দেশটির রাজনৈতিক দলগুলোকে।

এদিকে দ্য হিন্দুর বুধবার সকালের লাইভ আপডেট অনুযায়ী ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৭৩ হাজার ৭৭৭ জনে দাঁড়িয়েছে। এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ২ হাজার ৩৮৮ জন।

এ বিভাগের আরো সংবাদ