মাগুরায় মায়ের কোল থেকে ছুঁড়ে ফেলে শিশুকে হত্যা

মাগুরার মহম্মদপুরে লামিয়া (৫ মাস) নামে এক কন্যা শিশুকে মায়ের কোল থেকে ছুঁড়ে ফেলে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন।

সোমবার গভীর রাতে উপজেলার পলাশবাড়িয়া ইউনিয়নের রামপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

শিশু লামিয়া ওই গ্রামের চাঁদ মোল্যা ওরফে লিটু মোল্যার মেয়ে। এ ঘটনায় মহম্মদপুর থানায় নিহত শিশুটির পিতা চাঁদ মোল্যা ওরফে লিটু মোল্যা বাদী হয়ে হারুন রশীদ, নাজিম মোল্যা, ফুল মিয়ার নাম উল্লেখ করে আরও অজ্ঞাত ৮-১০ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

নিহত শিশুর বাবা লিটু মোল্যা জানান, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে একই গ্রামের হারুন, নাজিম মোল্যা ও ফুল মিয়ার সঙ্গে গ্রাম্য দল পরিবর্তন করা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। তার জের ধরে সোমবার রাত ১১টার দিকে প্রতিপক্ষের লোকজন প্রতিবেশী আলিম মোল্যা ও মতিয়ার রহমানের বাড়িতে হামলা, ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ শুরু করে।

আগুন আগুন বলে লোকজন চিৎকার করলে শব্দ শুনে আমি আগুন নেভাতে যাই। স্ত্রী খাদিজা শিশু সন্তানকে নিয়ে ঘরে ছিল। এ সুযোগে প্রতিপক্ষের হারুন আর রশিদের নেতৃত্বে ৮-১০ জন যুবক দেশি অস্ত্র রামদা, ছ্যানদা নিয়ে ঘরে প্রবেশ করে আমাকে খোঁজ করে। আমাকে না পেয়ে আমার স্ত্রীকে ঘর থেকে বাইর করার চেষ্টা করে এবং স্ত্রীর কোলে থাকা শিশুকে কেড়ে নিয়ে ছুঁড়ে মাটিতে ফেলে দেয়।

শিশুটিকে ফেলে দেয়ার পর তার অবস্থা আশংকাজনক দেখে তারা দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে শিশুটির মা চিৎকার করলে স্থানীয়রা শিশুকে উদ্ধার করে মহম্মদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্রেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক কাজী আবু আহসান শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন।

প্রতিপক্ষের লোকজন শিশু লামিয়া হত্যার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, হত্যার বিষয়টি সম্পূর্ণ সাজানো নাটক। শিশুটি দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিল, তার মৃত্যু স্বাভাবিকভাবে হয়েছে। এখন হত্যার নাটক সাজিয়ে মামলা দিয়ে আমাদের লোকজনকে ফাঁসানো চেষ্টা করছে।

মহম্মদপুর থানার ওসি তারক বিশ্বাস বলেন, এ ঘটনায় শিশুটির পিতা বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। আসামিদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশ তৎপর রয়েছে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ