নবীগঞ্জে অনিয়মের সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে হত্যার হুমকি

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নে ‘ভুয়া টিপসই দিয়ে চাল আত্মসাৎ’ এবং ‘গজনাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কর্তৃক ১০ টাকা কেজি দরের চালের সরকারী কার্ড ছিঁড়ে ফেলা প্রসঙ্গে, সংবাদ প্রকাশের পর জয়যাত্রা টিভি প্রতিনিধি ছনি চৌধুরীকে মোবাইল ফোনে কুপিয়ে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে।

শনিবার (৯ মে) বিকেলে হুমকির প্রেক্ষিতে নবীগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়রি করেছেন ছনি চৌধুরী ।

জিডিতে উল্লেখ করা হয়, সম্প্রতি নবীগঞ্জ উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নে ‘ভুয়া টিপসই দিয়ে চাল আত্মসাৎ’ প্রসঙ্গে ১৫ জন ভুক্তভোগী এবং পরের দিন ‘গজনাইপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কর্তৃক ১০ টাকা কেজি দরের চালের সরকারী কার্ড ছিঁড়ে ফেলা প্রসঙ্গে’ এক মহিলা ইউএনও বরাবরে লিখিত অভিযোগ দেন। এই দুই অভিযোগের প্রেক্ষিতে অন্যান্য সাংবাদিকদের পাশাপাশি ছনি চৌধুরীও তার কর্মরত মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশ করেন। এর জের ধরে গত ৮ মে শুক্রবার বেলা ১.২৭ মিনিটে ০১৫৩৭৫১৩০০২ নম্বর থেকে সাংবাদিক ছনির ব্যবহৃত মোবাইল নম্বরে একটি কল আসে। ছনি চৌধুরী ফোন রিসিভ করার পর অপর প্রান্ত থেকে জনৈক লোক প্রথমে তাকে হুশিয়ারি দেন সংবাদ প্রকাশ থেকে বিরত থাকতে। আর সংবাদ প্রকাশ করলে তার ক্ষতি হবে বলেন। এমনকি তাকে কুপিয়ে হত্যার হুমকি দেন। এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীদের হাতে নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার হওয়া সাংবাদিক জুনাইদ আহমেদের মতো ছনি চৌধুরীকেও হত্যা করে টুকরো টুকরো করবেন বলে জানান ওই অজ্ঞাত লোক।

অজ্ঞাতনামা লোকের ওই হুমকিতে ছনি ও তার পরিবার পরিজন জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে সাধারণ ডায়রিতে উল্লেখ করেছেন। ছনি চৌধুরী তার স্কুল পড়ুয়া ভাই বোনসহ পরিবারের বড় ধরনের ক্ষতির সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে বলেও জিডিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

জিডিতে জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জের কাছে আবেদন করার পর আবেদনটি সাথে সাথে ডায়রিভুক্ত করে তদন্তের জন্য অফিসার নিয়োগ করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

এ প্রসঙ্গে নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আজিজুর রহমান সাধারণ ডায়েরীর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, জিডির আলোকে বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করা হচ্ছে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ