করোনাকে জয় করেছেন ১০ লাখেরও বেশি মানুষ

চীনের হুবেই প্রদেশ থেকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া নভেল করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট বিশ্বমহামারী কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হওয়ার পর চিকিৎসা নিয়ে সেরে উঠেছেন ১০ লাখ মানুষ।

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) বাংলাদেশ স্থানীয় সময় দুপুর ১টায় সেরে ওঠা মানুষের মোট সংখ্যা দাঁড়ায় ১০ লাখ ৬ হাজারে।

এর আগে বিশ্বের ২১০ টি দেশ ও অঞ্চল এবং তিনটি প্রমোদতরীতে ছড়িয়ে পড়া নভেল করোনাভাইরাসে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৩২ লাখ ২১ হাজার ৬৫৩ জন। তাদের মধ্যে ১৯ লাখ ৩০ হাজার সন্তোষজনক অবস্থায় রয়েছেন এবং সংকটাপন্ন অবস্থায় রয়েছেন ৫৯ হাজার ৮১৪ জন। এছাড়াও মৃত্যু হয়েছে দুই লাখ ২৮ হাজার ২৭৮ জনের।

এদিকে নভেল করোনাভাইরাস জয় করে সেরে ওঠা মানুষের সংখ্যায় একক দেশ হিসেবে শীর্ষে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে করোনাজয়ী মানুষের সংখ্যা এক লাখ ৪৭ হাজার ৪১১। ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে শীর্ষে রয়েছে স্পেন। স্পেনে করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে সেরে উঠেছেন এক লাখ ৩২ হাজার ৯২৯ জন। জার্মানিতে করোনাজয়ী মানুষের সংখ্যা এক লাখ ২০ হাজার ৪০০ জন। এছাড়া চীনে ৭৭ হাজার ৬১০, ইরানে ৭৩ হাজার ৭৯১, ইতালিতে ৭১ হাজার ২৫২, ফ্রান্সে ৪৮ হাজার ২২৮, তুরস্কে ৪৪ হাজার ৪০ জন নভেল করোনাভাইরাস থেকে সেরে উঠে নিয়মিত জীবনে ফিরে গেছেন।

অন্যদিকে, যুক্তরাজ্য ও নেদারল্যান্ডসের পক্ষ থেকে করোনাভাইরাস থেকে ঠিক কতজন সেরে উঠেছেন সে ব্যাপারে কোনো তথ্য জানানো হচ্ছে না। তাই পরিসংখ্যানে এ দুটি দেশ যুক্ত হলে নভেল করোনাভাইরাস থেকে সেরে ওঠা মোট মানুষের সংখ্যা আরও বৃদ্ধি পাবে।

তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, একবার আক্রান্ত হয়ে সেরে উঠলেই যে তার শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হবে এমনটা নয়।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে নভেল করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট বিশ্বমহামারী কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে সেরে ওঠা মানুষের সংখ্যা ১৫০। সর্বশেষ ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনাভাইরাস আক্রান্ত ১১ জন সেরে উঠেছেন।

এ বিভাগের আরো সংবাদ