বাধ্য না হলে প্রবাসীদের দেশে না আসার অনুরোধ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

বাধ্য না হলে প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেশে না আসার অনুরোধ জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। তিনি বলেন, প্রবাসী শ্রমিকদের অনুরোধ করব- বাধ্য না হলে কেউ যেন দেশে ফিরে না আসে।

মন্ত্রী বলেন, আপৎকালীন সময় পার হলে তাদের জন্য ভালো সময় আসবে। প্রবাসীদের কেউ যেন না খেয়ে থাকে সে জন্য সরকার খাদ্য সহায়তা দিচ্ছে।

বুধবার সৌদি আরবে প্রবাসী বাংলাদেশিদের স্বাস্থ্যসেবা ও পরামর্শ প্রদানের জন্য গঠিত ‘প্রবাসবন্ধুকলসেন্টার’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

ভিডিও কনফারেন্সে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে সংযুক্ত হয়ে ড. মোমেন বলেন, প্রবাসীরা বাংলাদেশের সম্পদ। তাদের সহযোগিতার জন্য বাংলাদেশের সব বৈদেশিক দূতাবাসকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। করোনাভাইরাস থেকে নিজেদেরকে মুক্ত রাখতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য সব প্রবাসী বাংলাদেশিদের অনুরোধ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, সৌদি আরবে ২২ লাখ প্রবাসী বাংলাদেশি বাসায় বসে স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। অন্যান্য দেশের মধ্যে যেখানে অধিক সংখ্যক প্রবাসী আছে সেখানেও এ সেবা চালুর জন্য বাংলাদেশের বৈদেশিক মিশনপ্রধানদের অনুরোধ করেন তিনি। এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের অঙ্গীকার পূর্ণব্যক্ত করেন ড. মোমেন। তিনি বলেন- নিউইয়র্ক, লন্ডনসহ কয়েকটি দেশে এ সেবা চালু আছে। এ সময় প্রবাসীদের বর্তমান পরিস্থিতিতে এ সেবা নেয়ার অনুরোধ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

এটুআই এবং আইসিটি বিভাগের সহযোগিতায় এ কলসেন্টারটি চালু করা হল। এ কলসেন্টারের মাধ্যমে প্রবাসী ডাক্তাররা প্রবাসী বাংলাদেশিদের টেলিফোনে সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত স্বাস্থ্যসেবা ও পরামর্শ প্রদান করবেন।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক এ সময় ভিডিও কনফারেন্সে সংযুক্ত ছিলেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মো. তৌহিদুল ইসলাম এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানান।

এ বিভাগের আরো সংবাদ