উমরের নিষেধাজ্ঞার খবরে হতবাক কামরান

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) দুর্নীতিবিরোধী ধারা ভঙ্গের দায়ে সব ধরনের ক্রিকেটে তিন বছর নিষিদ্ধ হয়েছেন উমর আকমল। ছোট ভাইয়ের এ নিষেধাজ্ঞার খবরে হতবাক বড় ভাই কামরান আকমাল। তার মতে, এ শাস্তিকে চ্যালেঞ্জ জানাবে উমর।

কামরান বলেন, ন্যায়বিচারের জন্য আমরা সব প্ল্যাটফর্মে যাব। যেভাবেই হোক এ অবস্থা থেকে বের হব। তার দাবি, তথ্য গোপনের শাস্তি এত বেশি হয় না।

তিনি বলেন, উমরকে কেন এত কঠোর শাস্তি দেয়া হলো, তা আমার বোধগম্য নয়। এ নির্বাসনের বিরুদ্ধে আমি এবং আমার পরিবার ভাইয়ের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়ব।

উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান উমর পাকিস্তানের হয়ে ১৬ টেস্ট, ১২১ ওয়ানডে ও ৮৪ টি-টোয়েন্টি খেলেছেন। দীর্ঘদিন বড় ভাই কামরানের পরিবর্তে পাক দলে উইকেটরক্ষকের ভূমিকা পালন করেছেন ডানহাতি মিডলঅর্ডার এ ব্যাটসম্যান।

সবশেষ দুর্নীতির প্রস্তাব পেয়েও তা কর্তৃপক্ষকে জানাননি উমর। এ কারণে তাকে সোমবার সব ধরনের ক্রিকেটে তিন বছর নিষিদ্ধ করেছে বোর্ড। এ সময়ে আন্তর্জাতিকসহ ঘরোয়া ক্রিকেটে নিষিদ্ধ থাকবেন এ হার্ডহিটার।

এ বিষয়ে উমরের জবাব চেয়েছিল পিসিবি। উত্তরে তিনি বলেন, দুটি ডেলিভারি ছেড়ে দেয়ার বদলে আমাকে দুই লাখ ডলার দিতে চেয়েছিল বুকিরা। তবে সেই প্রস্তাবে রাজি হইনি আমি।

কিন্তু তথ্য গোপন করায় ফেঁসে গেছেন উমর। প্রস্তাব পাওয়ামাত্রই তা বোর্ডকে অবহিত করতে হতো। পরে সেটি আইসিসিকে জানাত তারা। তবে তা করেননি ২৯ বছর বয়সী এ ক্রিকেটার। ফলে এত বড় শাস্তি নেমে এলো তার ওপর। পাকিস্তানের ক্রিকেটের যে সংস্কৃতি, তাতে অনেকেই উমরের ক্যারিয়ারের শেষ দেখে ফেলছেন।

তথ্যসূত্র: ক্রিকেট পাকিস্তান ডটকম।

এ বিভাগের আরো সংবাদ