ইমরানকে পাশে রেখে নারীদের নিয়ে মাওলানা তারিকের কটূক্তি

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসকে নারীদের পাপের ফল বলে মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের একজন মাওলানা। মাওলানা তারিক জামিল যখন নারীদের নিয়ে এই কটূক্তি করলেন তখন তার পাশে ছিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। পরে অবশ্য ওই মাওলানা তার মন্তব্যের জন্যে ক্ষমা চান।

শ্বাসকষ্টজনিত রোগে ভোগা মানুষদের জন্য অর্থ সংগ্রহের অনুষ্ঠান এহেসাস টেলিথনে মাওলানা তারিক জামিল নারীদের নিয়ে এই কটূক্তি করেন। এমন বক্তব্য দেয়ার সময় তার পাশেই দাঁড়িয়েছিলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। উক্ত মাওলানা আরো বলেন, মানুষের প্রতি মানুষের অসততা, মিথ্যাচারণ ও প্রতারণার কারণেই বিশ্বব্যাপী মহামারি রূপে নেমে এসেছে করোনাভাইরাস।

এক ঘণ্টার বক্তৃতায় মাওলানা জামিল বলেন, করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করাটাই মূল লক্ষ্য নয়। মূল লক্ষ্য হলো স্রষ্টার সামনে বিনম্র থাকা। করোনাভাইরাসকে তিনি বিশেষ করে নারীদের পাপের ফল বলে বর্ণনা করেন।

মিডিয়ার ভূমিকার সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘একটি বড় চ্যানেল আমার থেকে পরামর্শ চেয়েছিল। আমি তাদের বলি, চ্যানেল থেকে সব মিথ্যে আগে সরিয়ে ফেলুন। চ্যানেলের মালিক জবাবে বলেন, চ্যানেল বন্ধ হয়ে যাবে, কিন্তু মিথ্যের কোনও শেষ নেই। শুধু এখানেই নয়, গোটা বিশ্বের সংবাদমাধ্যমেরই এক অবস্থা।’ অবশ্য এই মন্তব্যের জন্য পরে তিনি ক্ষমা চেয়ে নেন।

করোনার কারণ নিয়ে তার দাবি, ‘আমার দেশের সম্মান কে নষ্ট করেছে? কে আমার দেশের মেয়েদের নাচিয়েছে? কে তাঁদের আঁটসাট পোশাক পরতে বলেছে? এই পাপের জন্য কাকে দায়ী করব? আমার সম্প্রদায়কে এগুলো বোঝাতে পারিনি বলে আল্লাহের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি। যখন একজন মুসলিম কন্যা অশ্লীলতার পথ নেন, আর যুব সম্প্রদায় কুরুচিপূর্ণ হয়ে ওঠে, তখন পাপের সব সীমা অতিক্রম করার জন্য পাঁচবার অভিশাপ দেন আল্লাহ।’

যদিও নারীদের বিরুদ্ধে এমন মন্তব্যের জন্য মানবাধিকার কমিশনের কড়া নজরে এসেছেন এই মৌলবাদী। কমিশন ট্যুইটে জানিয়েছে, নারীদের প্রতি এমন আপত্তিকর মন্তব্য কিছুতেই মেনে নেওয়া যায় না। টেলিভিশনে আবার সে মন্তব্যের সম্প্রচারও হয়েছে। সে দেশের শীর্ষ সংবাদপত্র ডনে এই ঘটনার নিন্দা করে বলেছে, মৌলবাদীর ভুলও কেউ ধরিয়ে দেয়নি। এটা খুবই লজ্জার।

এ বিভাগের আরো সংবাদ